শনিবার, ৫ ডিসেম্বর, ২০২০ খ্রিস্টাব্দ
সর্বশেষ সংবাদ
অপরাধ, আইন ও বিচার, ঢাকা বিভাগ নকল সাংবাদিকের পদবী তদন্তকারী,পেশায় তিনি রাজমিস্ত্রি! অবশেষে গ্রেপ্তার!

নকল সাংবাদিকের পদবী তদন্তকারী,পেশায় তিনি রাজমিস্ত্রি! অবশেষে গ্রেপ্তার!


পোস্ট করেছেন: বার্তা বিভাগ ২ | প্রকাশিত হয়েছে: মে ২৬, ২০১৯ , ৩:৫৭ অপরাহ্ণ | বিভাগ: অপরাধ,আইন ও বিচার,ঢাকা বিভাগ


মোঃ সোহেল মিয়া, নিজস্ব প্রতিবেদকঃ
গাজীপুরের শ্রীপুর উপজেলার বেকাশহরা গ্রামের এক মেয়েকে সাংবাদিকতায় চাকরি দেওয়ার কথা বলে হাতিয়ে নিয়েছে নগদ ২৬ হাজার টাকা।
২৫ মে শনিবার সন্ধ্যায় উপজেলার বেকাশহরা গ্রাম থেকে স্থানীয়রা আমিনুল ইসলাম ও তার সহযোগী একজনকে আটক করে। পরে তাদেরকে শ্রীপুর থানা পুলিশের কাছে সোপর্দ করে এলাকাবাসী। ‌
নকল সাংবাদিকের নাম আমিনুল ইসলাম (২২)। সে গাজীপুরের কালিয়াকৈর উপজেলার ফুলবাড়িয়া ইউনিয়নের খোলেশানী গ্রামের আজিজুল ইসলামের ছেলে। সে পেশায় রাজমিস্ত্রি, কিছুদিন পূর্বে শ্রীপুর উপজেলার উজিলাব গ্রামের ইস্টিম ওয়্যারস লিমিটেড তৈরি পোশাক কারখানায় আইরন সেকশনে  চাকরি নেয়। একই কারখানায় চাকরি নেন উপজেলার বেকাশহরা গ্রামের হতদরিদ্র পরিবারের ১৮ বছর বয়সী মেয়ে।
অভিযুক্ত সহযোগী শরীফ মিয়া (৩০) উপজেলার পৌর এলাকার কেওয়া গ্রামের শরাফত আলীর ছেলে।
ওই মেয়েকে সাংবাদিকতায় চাকরি দেওয়ার কথা বলে নগদ ২৬ হাজার টাকা হাতিয়ে নিয়েছে। মিথ্যা প্রলোভন দেখিয়েছে প্রতি মাসে বেতন দেয়া হবে ৩০ হাজার টাকা।৭১ প্রতিদিন নামক একটি  অনলাইন পত্রিকার ভিজিটিং কার্ডে দেখা যায় ওই মেয়ে বিশেষ প্রতিনিধি এবং বাংলাদেশ জাতীয় প্রেসক্লাবে নির্বাহী সদস্য তবে তার কোন আইডি কার্ড পাওয়া যায়নি।
স্থানীয়রা জানান, মিথ্যা প্রলোভন দিয়ে নগদ অর্থ হাতিয়ে নিয়েছে ও এই মেয়েটিকে পাচার করার উদ্দেশ্যে সিএনজি যুগে ময়মনসিংহের গফরগাঁওয়ে একটি কাজের উদ্দেশ্যে রাতের বেলা নিয়ে যাওয়ার পরিকল্পনা করে।আমাদের সন্দেহ হলে আমরা ওই ছেলেটিকে জিজ্ঞাসাবাদ করি একপর্যায়ে ছেলেটি সব স্বীকার করে। এবং তার সাথে জড়িত শ্রীপুর উপজেলার আব্দুল কাদির ও ময়মনসিংহের গফরগাঁও থানার মাইজবাড়ি এলাকার রাব্বি নামের ব্যক্তি।
আমিনুল ইসলামের বাবা পেশায় রিক্সা চালক আজিজুল ইসলাম বলেন, আমার ছেলে অশিক্ষিত মূর্খ, সে কখনো লেখাপড়া করেনি। রাজমিস্ত্রি কাজ করে। আমি শুনেছি কোথা থেকে টাকা পয়সা দিয়ে সে একটি সাংবাদিকের কার্ড এনেছে।সে প্রতারণা করেছে তার বিচার হওয়া উচিত।
শ্রীপুর মডেল থানার অফিসার ইনচার্জ জাবেদুল ইসলাম মুঠোফোনে জানান,অভিযুক্ত দুজনকে প্রতারণা করার অভিযোগে মামলা দিয়ে গাজীপুর আদালতে প্রেরণ করা হয়েছে।

Comments

comments

Close