মঙ্গলবার, ২৪ নভেম্বর, ২০২০ খ্রিস্টাব্দ
সর্বশেষ সংবাদ
অপরাধ, চটগ্রাম বিভাগ, প্রচ্ছদ, রাজনীতি পালংখালী ছাত্রলীগ সভাপতি জুনাইদের বিরুদ্ধে নানা অপকর্মের অভিযোগ

পালংখালী ছাত্রলীগ সভাপতি জুনাইদের বিরুদ্ধে নানা অপকর্মের অভিযোগ


পোস্ট করেছেন: বার্তা বিভাগ ২ | প্রকাশিত হয়েছে: জুন ১৯, ২০১৯ , ২:২৫ অপরাহ্ণ | বিভাগ: অপরাধ,চটগ্রাম বিভাগ,প্রচ্ছদ,রাজনীতি


বিশেষ প্রতিনিধিঃ
কক্সবাজারের উখিয়া পালংখালী ইউনিয়ন ছাত্রলীগের সভাপতি জুনাইদের বিরুদ্ধে  একের পর এক অভিযোগে প্রশ্নবৃদ্ধ ও কোণঠাসা হয়ে পড়েছে উখিয়া উপজেলা ছাত্রলীগের কার্যক্রম। এ বিষয়ে আতংকিত ভুক্তভোগীরা থানা পুলিশে অভিযোগ করতেও ভয় পাচ্ছেন বলে দাবি করেন।
তথ্যমতে জুনাইদ ছাত্রলীগের সভাপতি হওয়ার পর থেকে ইয়াবা তাকমা লাগিয়ে সাধারণ মানুষকে  নির্যাতন করে টাকা আদায় করার ঘটনা নিত্যদিনের। এ ছাড়াও
দখলবাজী ও নানান অপকর্মের সঙ্গে জড়িত থাকার অভিযোগ উঠেছে তার বিরুদ্ধে। খোদ ছাত্রলীগ নেতা কর্মীদের কয়েকজন এ অভিযোগ তুলেছেন।
রোহিঙ্গা অধ্যুষিত উখিয়ার পালংখালী ইউনিয়নের নানান অপর্কম ও মরণ নেশা ইয়াবা হাট হিসেবে পরিচিত। এ এলাকার বেশ কয়েকটি বিশেষ স্থান পালংখালী ইউনিয়ন সভাপতি নিয়ন্ত্রণ করেন বলে জানাগেছে। প্রতি সপ্তাহে ও মাসে এসব এলাকা থেকে মোটা অংকের চাঁদা আসে বলে দাবি করেছেন ছাত্রলীগ এর একটি পক্ষ।
এ দিকে ভুক্তভোগীদের কয়েকজন নাম প্রকাশ না করে গণমাধ্যম জানায়, জুনাইদের পুরো পরিবারই বিএনপির রাজনীতির সঙ্গে জড়িত। আ.লীগ ক্ষমতায় আসার পর তাদের অনৈতিক সুযোগ সুবিধার পথ বন্ধ হয়ে গেলে কৌশলে টাকার বিনিময়ে জুনাইদকে ছাত্রলীগে যুক্ত করা হয়।
এক সময় মোটা অংকে টাকার বিনিমিয় সে ছাত্রলীগের সভাপতির পথও পেয়ে যায়। সে থেকে সরকারি দলের নাম ব্যবহার করে বিভিন্ন অপর্কম করেই চলছে  বলে দাবি ভুক্তভোগীদের।
স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, জুনাইদের বাবা আবদুল মান্নান সাবেক পালংখালী বিএনপির সভাপতি ছিলেন।এবং তার ছোট চাচা রায়হান যুবদলের প্রভাবশালী সদস্য ও সাবেক সাংসদ বিএনপি নেতা আলহাজ্জ্ব শাহজাহান চৌধুরীর দেহরক্ষী।
একজন স্থানীয় জনপ্রতিনিধি বলেন, জুনাইদ ছাত্রলীগের নাম ব্যবহার করে কিছু অসহায় মানুষকে যে পরিমাণ নির্যাতন করে চলছেন সে কারনে ছাত্রলীগের যেমন বদনাম হচ্ছে। তেমনি এই ঐতিহ্যবাহি সংগঠনের প্রতি  বর্তমান প্রজন্মের  নৈতিবাচক ধারণা তৈরি হচ্ছে। যা ভবিষ্যৎ সংগঠনের জন্য ক্ষতি হতে পারে বলে আসংখ্যা তার।
এ ব্যাপারে উখিয়া উপজেলা ছাত্রলীগ সভাপতি মকবুল হোসেন মিতুন এর সঙ্গে যোগাযোগ করা হলে তিনি জুনাইদের বিরুদ্ধে সব অভিযোগই সত্য বলে জানান। তিনি বলেন, এমন কোন দিন নেই পালংখালী সভাপতির বিরুদ্ধে অভিযোগ আসেনা। সাধারণ মানুষকে কারনে অকারনে  নির্যাতন প্রভাব বিস্তার দখলবাজীসহ নানান অপকর্মের অভিযোগে অামি নিজেও খুব বিরক্ত।
এতো কিছুর পরও তার বিরুদ্ধে কেন ব্যবস্থা গ্রহণ করা হচ্ছেনা জানতে চাইলে, মিতুন বলেন, উপরের নির্দেশে তাকে পাংখালী ইউনিয়নের  সভাপতি করা হয়েছে।  আমার ইচ্ছে থাকার পরও তার বিরুদ্ধে ব্যাবস্থা নিতে পারচ্ছিনা। এ ব্যাপারে ভুক্তভোগীরা প্রয়োজনে থানায় যেতে আশ্রয় গ্রহণ করতে পারেন। এবং অন্যান্য বিষয় গুলো পুলিশ তদন্ত করে ব্যবস্থা নিতে পারেন বলে মন্তব্য করেন তিনি।
এ বিষয়ে অভিযুক্ত জুনাইদ সব অস্বীকার করে বলেন,আমি মাদক সেবনকারী ও ব্যবসায়ীদের ধরিয়ে দিচ্ছি তাই আমার বিরুদ্ধে এসব ষড়যন্ত্র। তিনি প্রশ্ন রেখে বলেন, আমি যদি এতো অপরাধ আর কাউকে নির্যাতন করে থাকি,পরিষদ বা থানায় আমার বিরুদ্ধে কোন অভিযোগ নেই কেন? এসব একটি পক্ষ তার রাজনৈতিক ক্যারিয়ার ধ্বংস করতে করা হচ্ছে বলে দাবি তার।

Comments

comments

Close