শুক্রবার, ৭ মে, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ
সর্বশেষ সংবাদ
কৃষি, দেশ জুড়ে, প্রচ্ছদ, ভ্রমন, রংপুর বিভাগ ময়নামতির চর হতে পারে দেশের অন্যতম পর্যটন কেন্দ্র

ময়নামতির চর হতে পারে দেশের অন্যতম পর্যটন কেন্দ্র


পোস্ট করেছেন: বার্তা বিভাগ ৪ | প্রকাশিত হয়েছে: জুলাই ১, ২০১৯ , ৭:২৮ অপরাহ্ণ | বিভাগ: কৃষি,দেশ জুড়ে,প্রচ্ছদ,ভ্রমন,রংপুর বিভাগ


দেবীগঞ্জ,পঞ্চগড় প্রতিনিধিঃ-

চারিদিকে ঘেরা নদ-নদীর সাথে মিশে থাকা অপরুপ সৌন্দর্যময় এই লাল সবুজের বাংলাদেশ। নদীর তীরে কাশফুল,মাঠে ঘেরা সবুজ ফসলের প্রাকৃতিক সৌন্দর্য মানুষের মনকে আনন্দমুখর করে তোলে।

পঞ্চগড়ের দেবীগঞ্জ উপজেলার অপরূপ ছায়াঘেরা আর মন ছুঁয়ে যায় এমন একটি স্থান হলো ময়নামতির চর। উপজেলা সদর হতে এক কিলোমিটার দক্ষিণে ময়নামতির চরটি অবস্থিত। করতোয়া নদীর কোল ঘেষে ময়নামতি চরটি হযে উঠেছে আরও প্রাণবন্ত যা দেখলেই চোখ জুরিয়ে যায়।ময়নামতির চর প্রায় ৩৫ একর জমি জুরে বিস্তৃত । উক্ত চরে বন বিভাগ কর্তৃক বিভিন্ন ধরণের গাছের চারা রোপন করা হয়েছে। গাছ পালার মধ্যে রয়েছে,আমলকী, আতর, নিম, মেহগনি, কড়াই, দেবদারুসহ নানা প্রজাতির প্রায় ৩০.০০০হাজার গাছপালা।

এই ময়নামতির চরটি করতোয়া নদীর সংলগ্ন হওয়ায় উক্তস্থানটি অপরূপ শোভা ধারন করেছে।যে খানে ২০১৩ সালের ২৫ থেকে ৩১ জানুয়ারি ১০ম জাতীয় রোভারমূট ও পঞ্চম জাতীয় কমডেকা অনুষ্ঠিত হয়েছে, যা দেশরত্ন মাননীয় প্রধানমন্ত্রী উদ্ববোধন করেন। এছাড়াও ময়নামতির চরের উত্তরে সৃজিত হয়েছে চা বাগান, বাংলাদেশের অপরুপ সৌন্দর্যময় করতোয়া সেতু, ডি সি পার্ক যেখানে রয়েছে কচিকাঁচাদের খেলনা সামগ্রী।

১৯৪৮সালে ১লা ফেব্রুয়ারি যখন পঞ্চগড় জেলা গঠিত হয়,তখনি আত্ব প্রকাশ পায় দেবীগঞ্জ উপজেলার। পঞ্চগড়রের দক্ষিণ পূর্বে আর নীলফামারী জেলার ডোমারের ৭ কিলোমিটার পশ্চিমে দেবীগঞ্জের অবস্থান হওয়ায় এসব এলাকা থেকে অনেক দর্শনার্থী এখানে ঘুরতে আসেন।সাদেকুল ইসলাম নামের এক দর্শনার্থী জানান, দেবীগঞ্জের ঐতিহ্যময় ময়নামতির চরে আসলেই মনের মুগ্ধতা বৃদ্ধি পায়।কারন খোলামেলা জায়গায় হাজারো গাছ-গাছালির ফাঁকে ফাঁকে রয়েছে বসার জন্য সিমেন্টের ব্রে ।

নদীর পার ঘেষে উঁচু চরটি দেখতে পর্বতের মত যার চারিদিক রয়েছে পাকা রাস্তা, যা দর্শনার্থীদের মুগ্ধ করে তোলে। সরকারী ও স্থানীয় রাজনীতি
বীদ, সমাজ সেবকদের পৃষ্টপোষকতায় এই ময়নামতির-চর হতে পারে উত্তর অঞ্চলের শ্রেষ্ঠ পিকনিক স্পর্ট বা পর্যটন কেন্দ্র।

Comments

comments

Close