মঙ্গলবার, ২৪ নভেম্বর, ২০২০ খ্রিস্টাব্দ
সর্বশেষ সংবাদ
খুলনা বিভাগ, প্রচ্ছদ, শোক চলে গেলেন দখলপুর গ্রামের নজরুল না ফেরার দেশে

চলে গেলেন দখলপুর গ্রামের নজরুল না ফেরার দেশে


পোস্ট করেছেন: বার্তা বিভাগ ২ | প্রকাশিত হয়েছে: জুলাই ১৭, ২০১৯ , ৮:৫১ অপরাহ্ণ | বিভাগ: খুলনা বিভাগ,প্রচ্ছদ,শোক


এম.টুকু মাহমুদ হরিণাকুণ্ডু থেকেঃ

ঝিনাইদহের  হরিণাকুণ্ডু সদর উপজেলার দখলপুর গ্রামের এক কৃষক টয়লেটে গলায় রশ্মি ঝুলিয়ে আত্মহত্যা করেছে। আজ দুপুরে তার নিজ বাস ভবনের টয়লেট রুমে গলায় রশি দিয়ে আত্মহত্যা করে সে।  

নিহত নজরুলের ভাই সাইদুর রহমান জানান, সকালে বাড়ি থেকে আমি যখন দোকানে যায় তখনো আমার ভাই ভালো ছিলো। সে দ্বীর্ঘদিন যাবত অসুস্থ্য ছিলো। আমার মনে হয় সে অসজ্জ্য জন্ত্রণা সইতে না পেরে আত্মহত্যার পথ বেছে নিয়েছে।

আমি সংবাদটি পেয়ে দ্রুত বাড়িতে গিয়ে দেখি আমার ভাই মারা গেছে। এদিকে ডাঃ বকুল বিশ্বাস জানান সে প্রায় ২/৩ বছর যাবত বিভিন্ন ধরণের অসুখে ভুগছিলো। তারই সুত্র ধরে আমার ধারণা সে আর সইতে না পেরে আত্মহত্যার পথ বেছে নিয়েছে।তবে এলাকাবাসী জানিয়েছে নিহত নজরুল অত্যন্ত ভালো লোক ছিলো।

হাজী আরশাদ আলী দাখিল মাদ্‌রাসার সুপার মুজাম্মেল হোসেন জানান নিহত নজরুল ইসলাম প্রায় তিন বছর যাবত বিভিন্ন ধরণের অসুখে ভুগছিলো। আমার ধারণা সে আর সইতে না পেরে আত্মহত্যার পথ বেছে নিয়েছে।

নিহত নজরুলের  ছেলে রনি বলেন আমার বাবা বাতরুমে একাএকা যেতে পারতো না। তাকে অন্যের সহায়তায় টয়লেটে যেতে হতো। তেমনি আজও তার ব্যাতিক্রম হয় নি। আমার বাবাকে বাথরুম থেকে বেরুতে দেরি দেখে আমাদের সন্ধেহ হইলে আমি বাথরুমের কাছে গিয়ে আমার বাবাকে ডাক দিলে বাবা যখন শাড়া না দেয় তখনই আমি বাথরুমের দরজা ধাক্কা দিয়ে দেখি যে, আমার বাবা গলাই রশি দিয়ে আত্মহত্যা করেছে, তাকে হাসপাতালে নেওয়ার সুজোগ ও হয়নি।তিনি আরও বলেন আমার বাবা অত্যন্ত ভালো বাবা ছিলো। সে দ্বীর্ঘদিন যাবত অসুস্থ্য ছিলো। আমার মনে হয় সে অসজ্জ্য জন্ত্রণা সইতে না পেরে আত্মহত্যার পথ বেছে নিয়েছে।

ঘটনা স্থল পরিদর্শন শেষে হরিণাকুণ্ডু থানার এস,আই(নিঃ)গোলাম সরোয়া জানান, কী কারণে এমন ঘটনা তা খতিয়ে দেখা হচ্ছে। তবে প্রাথমিকভাবে মনে হচ্ছে সে দ্বীর্ঘদিন যাবত অসুস্থ্য থাকায় এবং অসজ্জ্য জন্ত্রণা সইতে না পেরে আত্মহত্যার পথ বেছে নিয়েছে ।

Comments

comments

Close