মঙ্গলবার, ২৪ নভেম্বর, ২০২০ খ্রিস্টাব্দ
সর্বশেষ সংবাদ
আবহাওয়া, জীবন ধারা, প্রচ্ছদ, রাজশাহী বিভাগ শাহজাদপুরে বন্যা পরিস্থিতির ব্যাপক অবনতি  হওয়ায় হাজার হাজার মানুৃষ পানিবন্দী হয়েপরেছে।

শাহজাদপুরে বন্যা পরিস্থিতির ব্যাপক অবনতি  হওয়ায় হাজার হাজার মানুৃষ পানিবন্দী হয়েপরেছে।


পোস্ট করেছেন: বার্তা বিভাগ ২ | প্রকাশিত হয়েছে: জুলাই ২১, ২০১৯ , ৫:২৬ অপরাহ্ণ | বিভাগ: আবহাওয়া,জীবন ধারা,প্রচ্ছদ,রাজশাহী বিভাগ


 গত কয়েকদিনে সিরাজগঞ্জের শাহজাদপুর উপজেলার সার্বিক বন্যা পরিস্থিতির আরো অবনতি হয়েছে। উপজেলার যমুনা, করতোয়া ও বড়াল নদীর পানি ক্রমাগত বৃদ্ধি পাওয়ার ফলে যমুনার চর এলাকা সহ পৌর এলাকার দ্বারিয়াপুর নতুনপাড়া,সোনাতুনি ইউনিয়নের বানতিয়ার,ঘোরজান,দ্বীপপুর,শ্রীপুর,বারোপাখিয়া, কৈজুরি ইউনিয়নের নদীরক্ষা বাধের পূর্ব পাড়ের অধিকাংশ ঘড় বাড়ি ও বাজার, পোতাজিয়া ইউনিয়নের কাকিলামারি নিশিপাড়াসহ উপজেলার সবগুলো ইউনিয়নেই বন্যা পরিস্থিতি চরম আকার ধারণ করেছে। বাড়ি ঘড় ডুবে যাওয়ায় উপজেলার বিভিন্ন গ্রাম থেকে গরু-ছাগল সহ আশ্রয় নিয়েছে কৈজুরি ইউনিয়নে নবনির্মিত বন্যা নিয়ন্ত্রণ বাধের উপর। সোনাতুনি ইউনিয়নের শ্রীপুর গ্রামের শহীদ আলী জানান, যমুনার পানি ক্রোমাগত বৃদ্ধির ফলে ঘড় বাড়ি তলিয়ে গেছে। অথই সাগরে হাবুডুবু খাচ্ছে গ্রামের পর গ্রাম। বন্যার স্রােতে ভেসে যাওয়া থেকে বাঁচতে  বাধে এসে আশ্রয় নিয়েছে, নলকূপ ডুবে যাওয়ার ফলে খাবার পানিরও সংকট দেখাদিয়েছে,
এদিকে কৈজুরি ইউনিয়ন পরিষদ কমপ্লেস্ক , বাজার, স্কুল, কমিউনিটি ক্লিনিক ও স্বাস্থ্য কেন্দ্র ডুবে যাওয়ায় সাধারন মানুষ চরম বিপাকে পড়েছে। কৈজুরি ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান সাইফুল ইসলাম জানান, গত কয়েকদিন পানি বৃদ্ধির ফলে হাট বাজার,ঘড়-বাড়ি, স্কুল কলেজ ডুবে যাওয়ায় বিপর্যস্ত হয়ে পড়েছে মানুষ।
শাহজাদপুর দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা কমিটির সচিব জিন্দার আলী জানান, শাহজাদপুর উপজেলার ১৩ টি ইউনিয়ন ও একটি পৌরসভার সার্বিক বন্যা পরিস্থিতির বেশ কিছুটা অবনতি হয়েছে। বিশেষ করে খুকনি, জালালপুর, কৈজুরী, সোনাতনি, গালা, রূপবাটি ও পোরজনা এই ৭টি ইউনিয়নের নিম্নাঞ্চল বেশি প্লাবিত হয়েছে।তিনি আরো বলেন, বন্যায় এ সকল ইউনিয়নে এ পর্যন্ত ৪ হাজার ৫০০ পরিবার ক্ষতিগ্রস্থ হয়েছে। এ সকল পরিবারের মাঝে ইতিমধ্যেই ৪০০ প্যাকেট শুকনা খাবার বিতরণ করা হয়েছে।
এইচ এম আলাউদ্দিন 
শাহজাদপুর ( সিরাজগঞ্জ) প্রতিদিধি

Comments

comments

Close