শনিবার, ৫ ডিসেম্বর, ২০২০ খ্রিস্টাব্দ
সর্বশেষ সংবাদ
খুলনা বিভাগ, প্রচ্ছদ হরিণাকুন্ডু উপজেলার পৌরসভায় তালা ! পৌরবাসিরা দূর্ভোগে ।

হরিণাকুন্ডু উপজেলার পৌরসভায় তালা ! পৌরবাসিরা দূর্ভোগে ।


পোস্ট করেছেন: বার্তা বিভাগ ২ | প্রকাশিত হয়েছে: জুলাই ২১, ২০১৯ , ৮:২৮ অপরাহ্ণ | বিভাগ: খুলনা বিভাগ,প্রচ্ছদ


এম.টুকু মাহমুদ হরিণাকুণ্ডু থেকেঃ

 ঝিনাইদহ জেলার হরিণাকুণ্ডু পৌরসভা তালা বন্ধ থাকায় পৌরবাসীরা সিমাহীন দূর্ভোগের শিকার হচ্ছে । প্রতিনিয়ত বঞ্চিত হচ্ছে অতি প্রয়জনীয় সেবা থেকে, পৌরসভার প্রধান প্রধান মোড়গুলো দখল করে নিয়েছে ডাস্টবিন থেকে উপচে পড়া ময়লা আবর্জনার স্তুপ দূর্গন্ধ ছড়াচ্ছে সেখান থেকে প্রতিনিয়ত ।

সারা দেশের ৩২৮ টি ছোট বড় পৌরসভার ন্যায় হরিণাকুণ্ডুর পৌর কর্মকর্তা কর্মচারিরা রাষ্ট্রীয় কোষাগার থেকে বেত ও পেনশন সুবিদ্ধা পাওয়ার দাবীতে ঢাকা জাতীয় প্রসক্লাবের সামনে অনির্দিষ্ট কালের জন্য অবস্থান ধর্মঘটে অংশগ্রহন করায় পৌরবাসি অতি প্রয়োজনিয় জন্ম ও মৃত্যু সনদ, ট্রেড ও ঠিকাদারি লাইসেন্স , প্রত্যয়ন পত্র, নাগরিক সনদ ও ওয়ারেশ কায়েম সার্টিফিকেট , পানি ও পানি নিষ্কাসন সহ ময়লা আবর্জনা পরীষ্কার সেবা থেকে বঞ্চিত হচ্ছে।

দূর্ভোগ থেকে পরিত্রানের উপায় কি জানতে চাইলে পৌর মেয়র শাহিনুর রহমান রিন্টু বলেন সন্মানিত পৌরবাসীরা পৌরকর দেওয়ার বিপরিতে সেবা পাওয়ার দাবিদার কিন্তু কর্মকর্তা কর্মচারীরা গত ১৪ জুলাই থেকে আন্দোলনে থাকায় বিপাকে পড়েছি আমি আপর দিকে সরকার কর্মকর্তা কর্মচারীদের বেতন প্রায় দ্বিগুণ করায় আরও দুর্বীসহ জালে আটকা পড়েছি বেতন বাড়ার পাশাপাশি আমাদের মত তৃতীয় শ্রেণীর পৌরসভার ইনকাম না বাড়াতে ।

এদিকে ঢাকায় অবস্থান কর্মসুচিতে অংশগ্রহন রত পৌর কর্মকর্তা কর্মচারীদের নেতা মকবুল হোসেন , রিয়াজ উদ্দীন , ইকরামুল হক, এনামুল হকের সাথে মোবাইল ফোনে জানতে চাইলে তারা বলেন আন্দোলন রত অবস্থায় হবিগন্জ জেলার চুনারিঘাট পৌরসভার সচিব এর মৃত্যু হয়েছে , সরকার দাবী না মানলে পর্যায়ক্রমে সচিবালায় সহ প্রধান মন্ত্রীর কর্যালয় ঘেরাও করার সিদ্ধান্ত রয়েছে ।

Comments

comments

Close