সোমবার, ১৯ এপ্রিল, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ
সর্বশেষ সংবাদ
অপরাধ, প্রচ্ছদ, বিভাগীয় সংবাদ দেবিদ্বার থানা পুলিশের অভিযানে ১৭ পিস ইয়াবা ট্যাবলেট সহ মাদক ব্যবসায়ী গ্রেফতার

দেবিদ্বার থানা পুলিশের অভিযানে ১৭ পিস ইয়াবা ট্যাবলেট সহ মাদক ব্যবসায়ী গ্রেফতার


পোস্ট করেছেন: বার্তা বিভাগ ৪ | প্রকাশিত হয়েছে: আগস্ট ৩১, ২০১৯ , ১১:৫৫ অপরাহ্ণ | বিভাগ: অপরাধ,প্রচ্ছদ,বিভাগীয় সংবাদ


আলমগীর হোসেন বাদশাঃ

২৯/০৮/২০১৯ বৃহস্পতিবার আনুমানিক সন্ধা-৭:০০টায় দেবিদ্বার উপজেলার সুবিল থেকে ১৭ পিস ইয়াবা ট্যাবলেট সহ ০১ মাদক পাচারকারী গ্রেফতার হয়।জানা যায় দেবিদ্বার থানা পুলিশ গোপন সংবাদের ভিত্তিতে দেবিদ্বার থানাধীন অতি পরিচিত এগারোগ্রাম বাজারের দক্ষিন পার্শ্বের বাড়ির একাধিক মামলার আসামী আবুল বাশার(২৫), পিতা-মৃত হিরন খান্দনী, গ্রাম-মোগসাইর প্রকাশ্যে এগারোগ্রাম কে সুবিল থেকে ইয়াবাসহ আটক করে।

পুলিশ ধৃত আসামী আবুল বাশার এর দেহ তল্লাশী করে তার পরিহিত পেন্টের পকেটে রক্ষিত ১৭ (সতেরো) পিস ইয়াবা ট্যাবলেট উদ্ধার পূর্বক জব্দ করে। উক্ত ঘটনা সংক্রান্তে দেবিদ্বার থানার মাদক দ্রব্য নিয়ন্ত্রন আইনে মামলা দায়ের করে আসামীকে জেলহাজতে প্রেরন করেছে।

কতেক লোকের সাথে আলাপ করে জানা যায় তাকে দিনে তেমন একটা দেখা যায়না, সন্ধার পর শুরুহয় তার অপরাধ কার্যক্রম। ইয়াবা সংগ্রহ, বিক্রয়,পাচার, সেবন এবং চোরি সহ রাতের আধারে নানাহ অপরাধ করে বেড়ায়।স্থানিয় এলাকার সাধারণ জনগন তার কার্যকলাপে অতিষ্ট। পুলিশ তাকে গ্রেফতার করায় স্বস্থিবোধ করছেন জনগণ।স্থানিয় দের সাথে আলাপ করে আরও জানা যায় আসামীকে জিজ্ঞাসাবাদ করলে হয়তো মাদকের অনেক গুরুত্বপূর্ন তথ্য বেড়িয়ে আসবে।

গত ০৬ জানুয়ারী ২০১৭ তারিখ সন্ধা ০৬.৩০ ঘটিকার সময় এএসআই মোঃ আলাউদ্দিন সঙ্গীয় ফোর্স নিয়ে ৫৬ পিস ইয়াবা ট্যাবলেট সহ তাকে গ্রেফতার করেন এবং এএসআই আলাউদ্দিন বাদী হয়ে মাদক দ্রব্য নিয়ন্ত্রন আইনে মামলা দায়ের করে আসামীকে জেল হাজতে প্রেরন করেন, কিছুদিন পর সে জামিনে ছাড়া পায়।

এবং গত ২৬/০১/২০১৯ তারিখ রাত আনুমানিক তিন ঘটিকার সময় উপজেলাস্থ মোগসাইর গ্রামে আবুলের বাড়িতে চোরির উদ্দেস্যে সিদ কাটিয়া ঘরে প্রবেশ করার সময় ধরা খায়। পরে এলাকা বাসী উত্তম মধ্যম দিয়ে মাথার চুল কেটে মুখে কালি মেখে সারা এলাকা ঘুরিয়ে ছেড়ে দেয়।সে এলাকার একজন চিহ্নিত চোর, ইয়াবা সেবক এবং সাপ্লাই কারী।

তার কারনে স্থানিয় কিশোর সমাজ আজ ধ্বংসের দ্বার প্রান্তে। তার এবং তার গ্রুপের বিরুদ্ধে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহনের জন্য স্থানীয় আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর দৃষ্টি কামনা করছেন এলাকাবাসী।

Comments

comments

Close