মঙ্গলবার, ২৬ জানুয়ারি, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ
সর্বশেষ সংবাদ
অপরাধ, চটগ্রাম বিভাগ, জাতীয়, প্রচ্ছদ, বিভাগীয় সংবাদ, শোক সাতকানিয়া থানার পুলিশের ভুলে কারাগারে থাকা নিরপরাধ আবছারের কারাগার থেকে মুক্তি

সাতকানিয়া থানার পুলিশের ভুলে কারাগারে থাকা নিরপরাধ আবছারের কারাগার থেকে মুক্তি


পোস্ট করেছেন: বার্তা বিভাগ ৪ | প্রকাশিত হয়েছে: সেপ্টেম্বর ২, ২০১৯ , ৮:১৭ অপরাহ্ণ | বিভাগ: অপরাধ,চটগ্রাম বিভাগ,জাতীয়,প্রচ্ছদ,বিভাগীয় সংবাদ,শোক


এম.ইউছুফ,বিশেষ প্রতিনিধিঃ

চেক প্রতারণার মামলায় সাজাপ্রাপ্ত ওয়ারেন্টের আসামি ধরতে গিয়ে সোর্স ও স্থানীয়দের দেওয়া ভুল তথ্যে গ্রেফতার হয়ে ১৩ দিন পর কারাগার থেকে মুক্তি মিলল নিরপরাধ নুরুল আবছারের। সোমবার (০২ সেপ্টেম্বর) পঞ্চম যুগ্ম-মহানগর দায়রা জজ মো. জহির উদ্দিনের আদালত এ আদেশ দেন বলে আদালত সূত্রে জানা গেছে।

মুক্তি পাওয়া নুরুল আবছার সাতকানিয়া উপজেলার সোনাকানিয়া ইউনিয়নের মধ্যম গারাংগিয়া এলাকার মৃত নুরুন্নবীর ছেলে বলে জানা যায়।

চট্টগ্রাম পঞ্চম যুগ্ম-মহানগর দায়রা জজ আদালতের পেশকার ফরিদ আহমদ জানান, সাতকানিয়া থানার পুলিশের সহকারী উপ-পরিদর্শক (এএসআই) মো. জহিরুল ইসলাম চেক প্রতারণার মামলায় সাজাপ্রাপ্ত ওয়ারেন্টের আসামি ধরতে ভুলবশত প্রকৃত আসামি নুরুল আবছারের পরিবর্তে আরেকজন নুরুল আবছারকে গ্রেফতার করে আদালতে হাজির করেছিলেন গত ১৯ আগস্ট।পরে আদালত গ্রেফতার নুরুল আবছারকে কারাগারে পাঠিয়েছিলেন। পরে এএসআই মো. জহিরুল ইসলাম আদালতে আবেদনের মাধ্যমে জানান তিনি যে নুরুল আবছারকে কারাগারে পাঠিয়েছিলেন।

পরে এএসআই মো. জহিরুল ইসলাম আদালতে আবেদনের মাধ্যমে জানান তিনি যে নুরুল আবছারকে গ্রেফতার করেছিলেন তিনি প্রকৃত আসামি নন এবং এ সংক্রান্ত প্রয়োজনীয় ডকুমেন্টস তিনি আদালতে উপস্থাপন করেন। পরে আদালত গ্রেফতার নুরুল আবছারকে মুক্তির আদেশ দেন। প্রকৃত আসামি সাতকানিয়া উপজেলার গারাংগিয়া হাতিয়ারপুল এলাকার নুরুল কবির আলমের ছেলে নুরুল আবছার বর্তমানে সে ব্রাজিলে অবস্থান করছেন বলে জানান এএসআই মো. জহিরুল ইসলাম।

মামলার নতি ও অন্যান্য সুত্রে জানা যায়, আসামি নুরুল আবছার ব্র্যাক ব্যাংক লিমিটেড থেকে নেওয়া ঋণ পরিশোধে বহদ্দারহাট শাখার অ্যাকাউন্টের বিপরীতে ২০১৪ সালের ১ এপ্রিল ১ লাখ ৩৮ হাজার ১৮১ টাকার চেক প্রদান করেন। ১৭ এপ্রিল সেই চেক ডিসঅনার হয়। পরে ব্র্যাক ব্যাংক লিমিটেড প্রধান কার্যালয়ের পক্ষে ওয়াসা শাখার সহযোগী ম্যানেজার মোহাম্মদ জসিম উদ্দিন বাদি হয়ে নুরুল আবছারের নামে আদালতে চেক প্রতারণার মামলা দায়ের করেন।

চট্টগ্রাম পঞ্চম যুগ্ম-মহানগর দায়রা জজ আদালতের অতিরিক্ত পাবলিক প্রসিকিউটর উত্তম কুমার দত্ত জানান, পুলিশের ভুলে নিরপরাধ নুরুল আবছার ১৩ দিন ধরে কারাগারে রয়েছেন। সোমবার আদালত নুরুল আবছারকে মুক্তির আদেশ দিয়েছেন। তিনি আরো জানান, আসামি ধরার ক্ষেত্রে পুলিশের আরও যাচাই বাছাই করা উচিত বলে মত দেন প্রসিকিউটর উত্তম কুমার দত্ত।

Comments

comments

Close