বুধবার, ২৭ জানুয়ারি, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ
সর্বশেষ সংবাদ
রংপুর বিভাগ নদীগর্ভে ৫ শতাধিক বাড়ি, তিস্তার পাড়ে বিশেষ নামাজ ও মোনাজাত

নদীগর্ভে ৫ শতাধিক বাড়ি, তিস্তার পাড়ে বিশেষ নামাজ ও মোনাজাত


পোস্ট করেছেন: রংপুর বিভাগীয় ব্যুরো চিফ , | প্রকাশিত হয়েছে: সেপ্টেম্বর ১৩, ২০১৯ , ১১:৩১ অপরাহ্ণ | বিভাগ: রংপুর বিভাগ


ছাদেকুল ইসলাম রুবেল,গাইবান্ধা প্রতিনিধি : ভয়াাবহ বন্যার ক্ষত কাটিয়ে উঠতে না উঠতেই গাইবান্ধার সুন্দরগঞ্জে তিস্তা নদীর ব্যাপক ভাঙন শুরু হয়েছে।

গত ১৫ দিনে উপজেলার শ্রীপুর, কাপাশিয়া ইউনিয়নের পাঁচ শতাধিক বাড়ি নদীগর্ভে বিলীন হয়েছে। অসময়ে ভয়াবহ ভাঙন থেকে রক্ষা পেতে শ্রীপুর ইউনিয়নের পুটিমারী এলাকার শতশত মানুষ তিস্তা পাড়ে একত্রে হয়ে গতকাল বৃহস্পতিবার বিকেলে বিশেষ নামাজ আদায় করেছেন। নামাজ শেষে অন্তত ৫০ জন হাজি ভাঙন থেকে রক্ষা পেতে আল্লাহর দরবারে মোনাজাত করেন।

এলাকাবাসী জানান, তিস্তা নদীতে পানি কমার সঙ্গে সঙ্গে শ্রীপুর ও কাপাশিয়া ইউনিয়নের অন্তত ৮ কিলোমিটার জুড়ে ব্যাপক ভাঙন শুরু হয়েছে। গত ১৫ দিনে ভাঙনের মুখে পড়েছে শতশত বাড়ি ও ফসলি জমি।

ভয়াবহ বন্যার ক্ষত কাটিয়ে উঠতে না উঠতেই গাইবান্ধার সুন্দরগঞ্জে তিস্তা নদীতে শুরু হয়েছে ব্যাপক ভাঙ্গন। গত ১৫ দিনে উপজেলার শ্রীপুর, কাপাশিয়া ইউনিয়নের অস্তত ৫শ’ বাডি নদীগর্ভে বিলীন হয়েছে। অসময়ে ভয়াবহ ভাঙ্গন থেকে রক্ষা পেতে শ্রীপুর ইউনিয়নের পুটিমারী এলাকার শত শত মানুষ তিস্তা পাড়ে একত্রে হয়ে নামাজ আদায় করেছেন। নামাজ শেষে মহান আল্লাহ দরবারে ভাঙ্গন থেকে রক্ষা পেতে বিশেষ মোনাজাত করেছেন।

এদিকে তিস্তা নদীতে পানি কমার সাথে সাথে শ্রীপুর ও কাপাশিয়া ইউনিয়নের প্রায় ৮ কিলোমিটার জুড়ে ব্যাপক ভাঙ্গন এর কবলে পরেছে এলাকা বাসী। এ অবস্থায় এ এলাকার মানুষের মধ্যে আতংক বিরাজ করছে। ভাঙ্গন রক্ষায় জুরুরী ভিত্তিতে নদীর তীর সংস্কার কাজ করা না হলে বিলীন হয়ে যাবে হাজার হাজার বাড়িঘর ও ফসলী জমি।

Comments

comments

Close