শুক্রবার, ১৬ এপ্রিল, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ
সর্বশেষ সংবাদ
রংপুর বিভাগ সুন্দরগঞ্জের দুই গ্রামের যাতায়াতের একমাত্র ভরসা নড়বড়ে এক বাঁশের সাঁকো

সুন্দরগঞ্জের দুই গ্রামের যাতায়াতের একমাত্র ভরসা নড়বড়ে এক বাঁশের সাঁকো


পোস্ট করেছেন: রংপুর বিভাগীয় ব্যুরো চিফ , | প্রকাশিত হয়েছে: সেপ্টেম্বর ২৩, ২০১৯ , ৬:৫৪ অপরাহ্ণ | বিভাগ: রংপুর বিভাগ


ছাদেকুল ইসলাম রুবেল,গাইবান্ধা প্রতিনিধি : গাইবান্ধা জেলার সুন্দরগঞ্জ উপজেলার তারাপুর ইউনিয়নের চরখোর্দ্দা ও লাটশালা এই দুই গ্রামে যাতায়াতের একমাত্র ভরসা নড়বড়ে এক বাঁশের সাঁকো। এই সাঁকো দিয়েই এলাকাবাসিদের ঝুঁকি নিয়ে পথ চলাচল করতে হয়। বিশেষ করে শিশু ও বৃদ্ধরা পথ চলাচলে চরম বিপাকে পড়ে। তদুপরি যানবাহন চলাচল করতে পারে না বলে মালামাল পরিবহনে দুর্ভোগ পোহাতে হয় ওই দুই গ্রামের মানুষের।

উল্লেখ্য, খোর্দ্দা গ্রামের ইমামগঞ্জ বাজারের পূর্বপাশেই তাম্বুলপুর শাখা নদীর উপর এই বাঁশের সাঁকোটি স্বেচ্ছা শ্রমে এলাকাবাসীদের সহযোগিতায় গত দুই বছর আগে নির্মিত হয়। নির্মাণের পর থেকে মেরামত না করায় বর্তমানে নড়বড়ে হয়ে পড়ে। ওই পথ দিয়েই পাশর্^বর্তী কুড়িগ্রাম জেলার বিভিন্ন অঞ্চলের মানুষ গাইবান্ধাসহ বিভাগীয় শহর রংপুর যাতায়াত করে থাকেন বলে এই সড়ক এবং সড়ক সংলগ্ন সেতুটি অত্যান্ত গুরুত্বপূর্ণ। অথচ এলাকাবাসির দীর্ঘদিনের দাবি শর্তেও এই সড়কে একটি স্থায়ী ব্রিজ নির্মাণের এখন পর্যন্ত কোন উদ্যোগ গ্রহণ করা হয়নি। এমনকি বাঁশের সাঁকোটি মেরামত করে আরও উন্নত যোগাযোগ ব্যবস্থা করারও কোন প্রচেষ্টা চালানো হয় না।

এব্যাপারে উপজেলা প্রকৌশলী অফিস সুত্রে জানা গেছে, ইতোমধ্যে উপজেলায় সর্বমোট ১শ মি. দীর্ঘ ব্রিজের তালিকা করা হয়েছে। এরমধ্যে চরখোর্দ্দা ও লাটশালা গ্রামের বাঁশের সাঁকোটির স্থানে ব্রিজ নির্মাণেরও তালিকা রয়েছে।

Comments

comments

Close