বৃহস্পতিবার, ২৬ নভেম্বর, ২০২০ খ্রিস্টাব্দ
সর্বশেষ সংবাদ
প্রচ্ছদ, প্রশাসন, সিলেট বিভাগ সিলেট সদরে সমাজসেবা কার্যালয় কর্তৃক ভাতাসমূহ ডিজিটাল পদ্ধতিতে প্রদান বিষয়ক মতবিনিময় সভা অনুষ্ঠিত

সিলেট সদরে সমাজসেবা কার্যালয় কর্তৃক ভাতাসমূহ ডিজিটাল পদ্ধতিতে প্রদান বিষয়ক মতবিনিময় সভা অনুষ্ঠিত


পোস্ট করেছেন: উপ সম্পাদক | প্রকাশিত হয়েছে: সেপ্টেম্বর ২৭, ২০১৯ , ৮:১৩ পূর্বাহ্ণ | বিভাগ: প্রচ্ছদ,প্রশাসন,সিলেট বিভাগ


সিলেট সদর উপজেলা সমাজসেবা কার্যালয় কর্তৃক সমাজসেবা অধিদফতরের সামাজিক নিরাপত্তা বেষ্টনী কার্যক্রমের ভাতাসমূহ ডিজিটাল পদ্ধতিতে প্রদান বিষয়ক মতবিনিময় সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে।

২৬ সেপ্টেম্বর, বৃহস্পতিবার সকালে সদর উপজেলা পরিষদ মিলনায়তনে সদর উপজেলা প্রশাসন কর্তৃক আয়োজিত এবং এটুআই প্রোগ্রাম, তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি বিভাগের সহযোগিতায় সামাজিক নিরাপত্তা বেষ্টনী কার্যক্রমের আওতায় সমাজসেবার ভাতাসমূহ ডিজিটাল পদ্ধতিতে প্রদানের লক্ষ্যে স্থানীয় জনপ্রতিনিধি ও ভাতা ভোগীদের সাথে মতবিনিময় সভা অনুষ্ঠিত হয়।

দিদারুল ইকবালের সঞ্চালনায় এবং সিলেট সদর উপজেলা নির্বাহী অফিসার কাজী মহুয়া মমতাজের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে স্বাগত বক্তব্য রাখেন, সমাজসেবা অফিসার ফারহানা নাসরিন। বক্তব্য রাখেন, খাদিমপাড়া ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান অ্যাডভোকেট আফছার আহমেদ, কান্দিগাঁও ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান নিজাম উদ্দিন, মোগলগাঁও ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান মো: হিরন মিয়া, হাটখোলা ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান (ভারপ্রাপ্ত) মো: নিজাম উদ্দীন প্রমূখ।

উপজেলা নির্বাহী অফিসার কাজী মহুয়া মমতাজ বলেন, সরকার দেশের অসহায় ও হতদরিদ্র মানুষের কল্যাণে সমাজসেবা মন্ত্রণালয়ের মাধ্যমে ব্যাপক উন্নয়ন প্রকল্প বাস্তবায়ন করে যাচ্ছে। যেহেতু সরকার এখন সকল ভাতা ভোগীদের তথ্য এমআইএস-এ অন্তর্ভুক্ত করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে তাই ইউনিয়ন পর্যায়ে তথ্যসেবা কেন্দ্রের উদ্যোক্তাদের মাধ্যমে সকল ভাতাভোগীদের তথ্য ডাটা ভ্যালিডেশন করা হবে। এজন্য প্রত্যেক ভাতাভোগী তার জাতীয় পরিচয়পত্র সহ সমাজসেবা অফিস থেকে ইস্যুকৃত ভাতা বই, নমিনীর জাতীয় পরিচয়পত্র (বিশেষ ক্ষেত্রে জন্ম নিবন্ধন) এর ফটোকপি নিয়ে স্বশরীরে ইউনিয়ন পরিষদে এসে এমআইএস-এ অন্তর্ভুক্ত হতে হবে। স্বশরীরে উপস্থিতি ব্যতীত কোন ভাতাভোগীর তথ্য এমআইএস-এ অন্তর্ভুক্তি করা হলে এবং ১৮ বছরের ঊর্ধ্বে কোন ভাতাভোগীর জাতীয় পরিচয়পত্র ছাড়া তথ্য এমআইএস-এ অন্তর্ভুক্তি করলে দায়িত্বপ্রাপ্ত/সংশ্লিষ্ট ব্যক্তির বিরুদ্ধে সরকারি বিধি মোতাবেক ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে। বিশেষ ক্ষেত্রে কোন ভাতাভোগী গুরুতর অসুস্থ হলে অথবা অক্ষম হলে প্রয়োজনে ডাটা এন্ট্রির কর্মসূচির শেষে অসুস্থ বা অক্ষম ভাতাভোগীর বাড়ীতে গিয়ে তার তথ্য এমআইএস-এ অন্তর্ভুক্তি করা হবে।

উপজেলা সমাজসেবা অফিসার ফারহানা নাসরিন জানান, গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের ভিশন ২০২১ বাস্তবায়ন করতে সমাজসেবা অধিদফতরের যাবতীয় সেবাসমূহ এখন ডিজিটাল পদ্ধতিতে বাস্তবায়নের লক্ষ্যে কাজ করে যাচ্ছে। সামাজিক নিরাপত্তা বেষ্টনীর ভাতাসমূহ ডিজিটাল পদ্ধতিতে প্রদানের ফলে উপকারভোগীগণ পূর্বের চেয়ে আরো দ্রুত ও সহজে তার সেবাসমূহ পাবেন। তাই সকল ভাতাভোগীকে এমআইএস-এ অন্তর্ভুক্তি হতে হবে। একজন ভাতাভোগীর তথ্য এমআইএস-এ সফলভাবে অন্তর্ভুক্তির পর তিনি ইউনিক ১১ সংখ্যার একটি নম্বর পাবেন এমআইএস থেকে, উক্ত ইউনিক ১১ সংখ্যার নম্বরটি দিয়ে ভবিষ্যতে ভাতাভোগী সনাক্ত করা হবে। কোন ভাতাভোগী এমআইএস-এ আন্তর্ভুক্তি না হলে তাকে ভাতা প্রদান করা হবে না। যখন ভাতাভোগী তার জাতীয় পরিচয়পত্র দিয়ে এমআইএস-এ আন্তর্ভুক্তি হবেন তখন তিনি ভাতা পাবেন।

মতবিনিময় সভায় উপস্থিত ছিলেন, সদর উপজেলা পরিষদের বিভিন্ন বিভাগের অফিসারবৃন্দ, বিভিন্ন ইউনয়ন পরিষদের সম্মানিত ভাইস-চেয়ারম্যান ও মহিলা ভাইস-চেয়ারম্যান বৃন্দ, ইউনিয়ন পরিষদ সচিববৃন্দ, বিভিন্ন ওয়ার্ডের মেম্বার ও মহিলা মেম্বারবৃন্দ, বিভিন্ন ইউনিয়নের উদ্যোক্তাবৃন্দ এবং সাংবাদিকবৃন্দ।

Comments

comments

Close