শনিবার, ৫ ডিসেম্বর, ২০২০ খ্রিস্টাব্দ
সর্বশেষ সংবাদ
রংপুর বিভাগ গোবিন্দগঞ্জের নিহত কলেজ ছাত্রী লিজার বাড়ীতে চলছে শোকের মাতাম

গোবিন্দগঞ্জের নিহত কলেজ ছাত্রী লিজার বাড়ীতে চলছে শোকের মাতাম


পোস্ট করেছেন: রংপুর বিভাগীয় ব্যুরো চিফ , | প্রকাশিত হয়েছে: অক্টোবর ২, ২০১৯ , ৫:২৩ অপরাহ্ণ | বিভাগ: রংপুর বিভাগ


ছাদেকুল ইসলাম রুবেল,গাইবান্ধা : রাজশাহীতে থানার সামনে প্রকাশ্যে গায়ে কেরোসিন ঢেলে দগ্ধ হয়ে নিহত কলেজ ছাত্রী লিজার গাইবান্ধার বাড়ীতে চলছে শোকের মাতম। স্বজনদের অভিযোগ স্বামীর বাড়ীর নির্যাতন এবং পুলিশ অভিযোগ না নেয়ায় নিরুপায় হয়ে লিজা প্রকাশ্যে কেরোসিন ঢেলে নিজের গায়ে আগুন দিয়ে দগ্ধ হয়।

ঘটনাটি ঘটে গত শনিবার রাজশাহীর শাহ মখদুম থানার অদুরে। গুরুতর দগ্ধ লিজাকে প্রথমে মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নেয়া হয়। সেখানে তার অবস্থা আশংকাজনক হওয়ায় তাকে ঢাকায় শেখ হাসিনা ন্যাশনাল ইনস্টিটিউট অব বার্ন অ্যান্ড প্লাস্টিক সার্জারিতে পাঠানো হয়। সেখানে আজ সকালে লিজা মারা যায়।

গাইবান্ধার গোবিন্দগঞ্জ উপজেলার বোয়ালিয়ার ক্ষুদে বাশ ব্যবসায়ী আলম মিয়ার কন্যা লিজা আক্তার ছোট বেলায় মা মারা যাওয়ায় পাশ্ববর্তী লতিফ মিয়াকে দত্তক দেয় লিজা রহমানকে। দত্তক বাবা মায়ের কাছে বেড়ে ওঠা লিজা রাজশাহী মহিলা কলেজে ভর্তি হয়। সেখানে দ্বাদশ শ্রেণীতে পড়াশুনা অবস্থায় চাপাইনবাবগঞ্জের নাচোলের এক ছেলেকে আদালতে গিয়ে বিয়ে করেন লিজা। বিয়ের কয়েক মাস পড়েই বিষয়টি জানাজানি হলে স্বামীর পরিবার লিজা এবং তার দত্তক বাবা মাকে নানা ভাবে হুমকী দামকী দিয়ে আসছিল। স্বামীর পরিবার প্রভাবশালী হওয়ায় বিষয়টি নিয়ে কয়েকবার থানায় গেলেও পুলিশ লিজার অভিযোগ নেয়নি বলে দাবী করেন লিজার বাবা মা।

এদিকে বোয়ালিয়ায় লিজার দত্তক বাবা মাকে পাওয়া না গেলেও লিজার বাবা আলম মিয়া জানান ওই দিন লিজা ফোন করে তার কাছে মোবাইলে এক হাজার টাকা চায় এবং তার উপর স্বামী এবং তার পরিবারের লোকজনের নির্যাতনের কথা জানায়।

আলম মিয়া অভিযোগ করেন পুলিশ যথা সময়ে অভিযোগ নিলে আমার মেয়েকে এভাবে হারাতে হতো না।লিজার মা ও বড় বোন,ছোট বোন,দাদী ও প্রতিবেশীরা একই অভিযোগ করেন।তারা এই ঘটনায় জড়িতদের দৃষ্টান্ত মূলক শাস্তি দাবী করে মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর হস্তক্ষেপ ।

Comments

comments

Close