শুক্রবার, ১৬ এপ্রিল, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ
সর্বশেষ সংবাদ
রংপুর বিভাগ গোবিন্দগঞ্জে ভূমিদস্যু’র কবল থেকে মুক্তি পেতে থানায় অভিযোগ

গোবিন্দগঞ্জে ভূমিদস্যু’র কবল থেকে মুক্তি পেতে থানায় অভিযোগ


পোস্ট করেছেন: রংপুর বিভাগীয় ব্যুরো চিফ , | প্রকাশিত হয়েছে: ডিসেম্বর ২১, ২০১৯ , ৪:০৯ অপরাহ্ণ | বিভাগ: রংপুর বিভাগ


ছাদেকুল ইসলাম রুবেল,গাইবান্ধা প্রতিনিধি : গাইবান্ধার গোবিন্দগঞ্জে ভূমিদুস্য সেকেন্দার আলী গংদের কবল থেকে মুক্তি পেতে প্রকৃত জমির মালিকের থানায় অভিযোগ দায়ের।

থানার অভিযোগ সুত্রে জানাগেছে, গোবিন্দগঞ্জ উপজেলার সাপমারা ইউনিয়নের চকরহিমাপুর গ্রামের ভূমিদস্যু সেকেন্দার আলী মন্ডল (৬৫) গংগেরা একই গ্রামের মরহুম নুর হোসেনের তফশিল বর্ণিত জমি চকরহিমাপুর মৌজার জেএল নং-১১৯, খতিয়ান নং সিএস-১১৩, আরএস-১৩৭, দাগ নং-৩৩২, ৩৩৬, এর ৭৫ শতাংশ পৈত্তিক সম্পতি বে-দখল করে চাষাবাদ করতো। পৈত্তিক সম্পতি ভুমিদস্যুদের হাত থেকে ফিরে পেতে মরহুম নুর হোসেনের মেয়ে মোছাঃ শিউলি বেগম (৪৫) ও ভাই আব্দুর রহিম গোবিন্দগঞ্জ বিজ্ঞ সহকারী জজ আদালত ও গাইবান্ধা বিজ্ঞ আদালতের মামলায় তারা রায় পায়। সেই রায় মোতাবেক বিজ্ঞ আদালতের মাধ্যমে জমি শিউলি বেগমদের বুঝিয়া দিলেও ভূমিদস্যু সেকেন্দার আলী গংগেরা আদালত অবমাননা করে জোরপূর্ব্বক ওই সব নালিশী সম্পতি জোবর দখলে রাখে। এ বিষয়ে সাপমারা ইউনিয়ন পরিষদের গ্রাম্য আদালতে ভূমিদস্যু সেকেন্দার আলী গংদের বিরুদ্ধে নালিশী অভিযোগ দায়ের করলে তারা গ্রাম্য আদালতে হাজির না হওয়ায় গ্রাম্য আদালত শিউলি বেগমদের পিতার পৈত্তিক জমি আদালতের নির্দেশনা অনুযায়ী শিউলি বেগমদের পক্ষে রায় প্রদান করেন। সেই মোতাবেক গত ১৭ ডিসেম্বর শিউলি বেগম সহ আরো ওয়ারিশগণ আদালতের মাধ্যমে বুঝিয়া পাওয়া সম্পত্তিতে হালচাষ করতে গেলে ভূমিদস্যু সেকেন্দার আলী গংগেরা দেশীয় অস্ত্র নিয়ে তাদের চড়াও হয়। অবশেষে সকল বাঁধা অতিক্রম করে আদালতের নির্দেশনা বাস্তবায়নে গত ১৯ ডিসেম্বর সকালে পিতার পৈত্তিক জমি লাল পতাকা উত্তোলণের মাধ্যমে নিজেদের দখলে নিয়ে গাছ রোপন করেন। ভূমিদস্যুরা ভাড়াটিয়া সন্ত্রাসী দিয়ে তাদের বিভিন্ন ভয়ভীতি ও জীবননাশের হুমকি দেওয়ায় শিউলি বেগম বাদী হয়ে ভূমিদস্যুদের বিরুদ্ধে থানায় অভিযোগ দায়ের করেছেন।

Comments

comments

Close