সোমবার, ১৯ এপ্রিল, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ
সর্বশেষ সংবাদ
আজকের পত্রিকা, ঢাকা বিভাগ, প্রচ্ছদ শ্রীপুরে দশম শ্রেণির ছাত্রীকে উত্যক্ত করার অভিযোগে মানববন্ধন।

শ্রীপুরে দশম শ্রেণির ছাত্রীকে উত্যক্ত করার অভিযোগে মানববন্ধন।


পোস্ট করেছেন: ক্রাইম রিপোর্টার, মোঃ রমজান আলী রুবেল | প্রকাশিত হয়েছে: ডিসেম্বর ৩১, ২০১৯ , ৪:০৬ অপরাহ্ণ | বিভাগ: আজকের পত্রিকা,ঢাকা বিভাগ,প্রচ্ছদ


ক্রাইম রিপোর্টার রমজান আলী রুবেলঃ

শ্রীপুরে দশম শ্রেণির ছাত্রীকেযৌন হয়রানি করার পাশাপাশি মারধর,ও তার সম্পর্কে আপত্তিকর মন্তব্য করার প্রতিবাদে অভিযুক্ত ছাত্রের বিরুদ্ধে মানববন্ধন করেছে এলাকাবাসী। মঙ্গলবার (৩১ ডিসেম্বর) সকালে উপজেলার মাওনা উত্তরপাড়া গ্রামে মাওনা টু ধনুয়া সংযোগ সড়কে তারা এ কর্মসূচি পালন করে।

মানববন্ধনে অংশ নিয়ে বক্তারা প্রশ্ন তোলেন, একটি মেয়েকে কতটা অপবাদ দিলে, তার ওপর কতটা শারীরিক নির্যাতন ও যৌন হয়রানি করলে সে আত্মহত্যার চেষ্টা করে জবাব দিতে পারেন? এ ব্যাপারে স্কুল কর্তৃপক্ষকে জবাব দেয়ার আহ্বান জানান তাঁরা। শিক্ষার্থীর বাড়িতে এসে মারধর করেন বলে জানান মানববন্ধনের বক্তারা। তাঁরা পুলিশ প্রশাসনের কাছে এই ঘটনার সুষ্ঠু তদন্ত ও দোষী লাদেনের বিচার দাবি করেন।

এবিষয়ে ওই ছাত্রীর বাবা চার জনের নাম উল্লেখ করে শ্রীপুর মডেল থানায় একটি লিখিত অভিযোগ দায়ের করেছেন। অভিযোগ সুত্রে জানাযায়,শ্রীপুর উপজেলার মাওনা ইউনিয়নের মাওনা উত্তরপাড়া গ্রামের আক্তার হোসেনে ছেলে সুমন হাসান লাদেন ২২ (ওরফে সোটার লাদেন),স্কুল ছাত্রীকে রাস্তাঘাটে পাইয়া বিভিন্ন ভাবে উত্যক্ত করে আসতে থাকে। এবিষয়ে প্রতিবাদ করলে লাদেন তাদেরকে বিভিন্ন হুমকি দিয়ে আসতে থাকে। এর জের দরে সোমবার (৩০ ডিসেম্বর) বিকেল সাড়ে চারটার দিকে লাদেন ক্ষিপ্ত হয়ে ওই ছাত্রীর বাড়িতে এসে পরিকল্পিত ভাবে অনধিকার প্রবেশ করে ওই ছাত্রী ও তার মাকে মারধর করে ১ লক্ষ ৪৬ হাজার টাকা ও ঘরে থাকা স্বর্ণলংকার লোট করে নিয়ে যায়। লাদেনের বাবা আক্তার হোসেন বলেন,ঘটনাটি শোনেছি,তবে আমার ছেলে তারদের বাড়ি গিয়ে মারধর করেনাই। এবিষয়ে এলাকার লোক জনকে সাথে নিয়ে একটা মিমাংশার করার চেষ্টা চলেছে।

হাজ্বী ছোট কলিম উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক বলেন, সুমন হাসান লাদেন এক সময় আমার স্কুলে পড়তো,এর আগেও অনেক বার তার বিরুদ্ধে একাধিক অবিযোগ এসেছে স্কুলে। এই সব কর্মকান্ডের বিষয়ে জানতে পেরে স্কুল থেকে তাকে বহিস্কার করা হয়েছে অনেক আগেই। এখন সে আমাদের স্কুলে ছাত্র না।

এবিষয়ে শ্রীপুর মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) লিয়াকত আলী জানান, লিখিত অভিযোগ পেয়েছি ঘটনা তদন্ত সাপেক্ষে আইনানুগ ব্যবস্থা নেয়া হবে।

Comments

comments

Close