বৃহস্পতিবার, ৬ মে, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ
সর্বশেষ সংবাদ
আজকের পত্রিকা, ঢাকা বিভাগ, তথ্য প্রযুক্তি, নারী ও শিশু, প্রচ্ছদ, প্রথম পাতা শরীফপুর এলাকায় অপহরণের ১০ ঘণ্টা পর শিশু শাহরিয়া ইসলাম আরাফকে (১৬ মাস) উদ্ধার করেছে র‌্যাব-১।

শরীফপুর এলাকায় অপহরণের ১০ ঘণ্টা পর শিশু শাহরিয়া ইসলাম আরাফকে (১৬ মাস) উদ্ধার করেছে র‌্যাব-১।


পোস্ট করেছেন: ক্রাইম রিপোর্টার, মোঃ রমজান আলী রুবেল | প্রকাশিত হয়েছে: জানুয়ারি ২০, ২০২০ , ১:৩৫ অপরাহ্ণ | বিভাগ: আজকের পত্রিকা,ঢাকা বিভাগ,তথ্য প্রযুক্তি,নারী ও শিশু,প্রচ্ছদ,প্রথম পাতা


ক্রাইম রিপোর্টার রমজান আলী রুবেলঃ

গাজীপুর মহানগরীর গাছা থানার শরীফপুর এলাকায় অপহরণের ১০ ঘণ্টা পর শিশু শাহরিয়া ইসলাম আরাফকে (১৬ মাস) উদ্ধার করেছে র‌্যাব-১।

উদ্ধারকৃত শিশু শাহরিয়া ইসলাম আরাফ গাজীপুর মহানগরীর গাছা (শরীফপুর) এলাকার আশরাফ আলীর মেয়ে।

রবিবার (১৯ জানুয়ারি) দুপুরে এক প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানায় র‌্যাব-১ এর অধিনায়ক লে. কর্নেল শাফীউল্লাহ বুলবুল।

এর আগে শনিবার (১৮ জানুয়ারি) রাত সাড়ে ৯টার দিকে তাকে উদ্ধার করা হয়।

এ সময় অপহরণ চক্রের ৪ সদস্যকে আটক করে র‌্যাব। তাদের কাছ থেকে স্বর্ণালংকার, ৪টি মুঠোফোন ও নগদ টাকা উদ্ধার করা হয়।

আর আটককৃতরা হলো- বরিশালের বাকেরগঞ্জ উপজেলার সুন্দরকাঠি গ্রামের কামরুজ্জামান ওরফে রফিকের মেয়ে জেরিন ইশরাত জুলি (২২), তারিন নুশরাত তুলি (১৬), শরীয়তপুরের ড্যামুডা উপজেলার গোয়ালকুয়া গ্রামের আব্দুর রউফ সিকদারের ছেলে আমিনুল ইসলাম (২৯) ও একই জেলার সখিপুর উপজেলার দুলারচর গ্রামের মফিজ মাতুব্বরের ছেলে সুমন মিয়া (৩০)। তারা নগরীর চান্দরা সাইনবোর্ড এলাকায় বসবাস করত।

র‌্যাব-১ এর অধিনায়ক লে. কর্নেল শাফীউল্লাহ বুলবুল জানান, গত ১৬ জানুয়ারি জেরিন ইশরাত জুলি বাসা ভাড়া নেওয়ার উদ্দেশ্যে আশরাফ আলী দম্পতির বাসায় যায়। বাসা পছন্দ হওয়ায় ২ দিন পর ভাড়ার অগ্রিম টাকা দিয়ে যাবে বলে জানায়। তাদের কথামত শনিবার সকালে ছোট বোনকে অগ্রিম টাকা দেওয়ার জন্য ওই বাসায় যায় জেরিন। এ সময় আলোচনার একপর্যায়ে ঘুমের ওষুধ মেশানো জুস আশরাফ আলীসহ পরিবারের সবাইকে খাওয়ায়। জুস খেয়ে তারা অজ্ঞান হয়ে পরলে অপহরণকারীরা শিশু শাহরিয়া ইসলাম আরাফকে অপহরণ করে। এ সময় ঘরে থাকা স্বর্ণালংকার, মুঠোফোন ও নগদ টাকা নিয়ে যায়।

তিনি আরও জানান, দীর্ঘ সময় তাদের অজ্ঞান অবস্থায় দেখতে পেয়ে প্রতিবেশীরা তাদরে উদ্ধার করে স্থানীয় হাসপাতালে নিয়ে যায়। সেখানে প্রাথমিক চিকিৎসার পর বিকাল ৪টার দিকে তাদের জ্ঞান ফিরে। এ সময় তাদের শিশুকে খুঁজতে থাকে। পরে অপহরণকারীরা সন্ধ্যায় ভিকটিমের মায়ের মুঠোফোন থেকে তার বাবার কাছে শিশু অপহরণের কথা জানায় এবং মুক্তিপণ হিসেবে ২০ লাখ টাকা দাবি করে। দাবিকৃত টাকা না দিলে শিশুকে হত্যা করে কিডনি বিক্রি করার হুমকি দেয় অপহরণকারীরা। এরপর অপহরণের বিষয়টি র‌্যাবকে জানানো হয়। পরে তারা গোয়েন্দা নজরদারিতে তদন্ত শুরু করে।

র‌্যাবের এই কর্মকর্তা আরও জানান, বিকাশে টাকা লেনদেনের সময় নগরীর গাছা থানার সাইনবোর্ড এলাকা থেকে অপহরণকারী দুই বোনকে গ্রেফতার করা হয়। পরে তাদের দেওয়া তথ্যের ভিত্তিতে একই এলাকার একটি ফ্ল্যাটের পরিত্যক্ত গোপন কক্ষ থেকে তাদের আরও দুই সহযোগীকে গ্রেপ্তার করা হয়। এ সময় অপহৃত শিশু শাহরিয়া ইসলাম আরাফকে মুমূর্ষু অবস্থায় উদ্ধার করে র‌্যাব।

Comments

comments

Close