বৃহস্পতিবার, ২৬ নভেম্বর, ২০২০ খ্রিস্টাব্দ
সর্বশেষ সংবাদ
চটগ্রাম বিভাগ, প্রচ্ছদ সন্দ্বীপে চলাচলের পথ নিয়ে দু’পক্ষের বিরোধ চরমে

সন্দ্বীপে চলাচলের পথ নিয়ে দু’পক্ষের বিরোধ চরমে


পোস্ট করেছেন: উপ সম্পাদক | প্রকাশিত হয়েছে: জানুয়ারি ২৬, ২০২০ , ১১:০২ অপরাহ্ণ | বিভাগ: চটগ্রাম বিভাগ,প্রচ্ছদ


বাদল রায় স্বাধীন

সন্দ্বীপে মুছাপুরের ধোপারহাট এলাকায় চলাচলের পথ নিয়ে দু’পক্ষের বিরোধ চরমে উঠেছে। বিষয়টি স্থানীয়ভাবে মিমাংসা হওয়া সত্ত্বেও অন্য প্ররোচনার বশবর্তী হয়ে একটি পক্ষ বিভিন্ন পদক্ষেপ গ্রহণের মাধ্যমে পারিবারিক বিরোধটি চরম পর্যায়ে নিয়ে যাওয়ার অভিযোগ উত্থাপন করেছেন-মুছাপুর ইউনিয়নের সাবেক মেম্বার আবুল কাশেম ও তার মা শামছুন নাহার।

আজ ২৬ জানুয়ারী রবিবার বিকেলে সন্দ্বীপ প্রেস ক্লাবে আয়োজিত এক সাংবাদিক সম্মেলনে পরিবারের পক্ষে আবুল কাশেম মেম্বার লিখিত বক্তব্যে বলেন-তার বোন মোমেনা বেগম ঝর্ণা ও বোনের জামাতা রিদোয়ান নানা ছল চাতুরীর আশ্রয় নিয়ে সমঝোতার সিদ্ধান্ত উপেক্ষা করে তাদের বিরুদ্ধে বিষোদগার করে পরিবারের মানহানী করছে।

গত রবিবার এসএনটিভি নামে একটি অনলাইন টিভি রিপোর্টে এ সংক্রান্ত একটি প্রতিবেদন প্রচার করে- যা ছিল মিথ্যা, বানোয়াট, মনগড়া ও বিভ্রান্তিকর। তিনি এর তীব্র প্রতিবাদ জানান।

এ সময় এ বিষয়ে তার মা শামছুন নাহার বলেন, ‘উক্ত পথে প্রতিপক্ষ তার মেয়েদের আইনগতভাবে কোন মালিকানা নেই তদুপরি গত কয়েকদিন আগে একটি পারিবারিক সমঝোতার বৈঠকের সিদ্ধান্ত অনুযায়ী তারা এ পথ দিয়ে না হেঁটে পাশের বিকল্প আরেকটি পথ দিয়ে চলাফেরার প্রস্তাব করলে উভয় পক্ষ তা মেনে নেয়। পরবর্তীতে সিদ্ধান্ত অনুযায়ী জায়গা সংস্কারের স্বার্থে পূর্বের চলাচল পথটি কেটে ফেলা হয়।’

তিনি আরো বলেন, ‘আমার ছেলে আবুল হাশেম একজন সরকারি কর্মচারী, সে পরিবার নিয়ে ঢাকায় থাকে। এ বিষয়ে তাকে জড়ানো উদ্দেশ্যপ্রনোদিত। বরং আমার ছেলে আবু তাহেরকে প্রবাসে নেওয়ার প্রতিশ্রুতিতে আমার মেয়ের জামাতা রিদোয়ান বিনা টাকায় ১০ কড়া সম্পত্তি আমার কাছ থেকে রেজিস্ট্রি করে নিয়েছেন, বাড়ী তৈরির সময় আমার মেয়ে ঝর্ণা দফায় দফায় আরো টাকা হাওলাত নিয়েছেন। এ সব ফেরত না দেওয়ার জন্য এখন তারা বিভিন্ন ফন্দিফিকির করছে এবং নানা অপপ্রচার চালিয়ে যাচ্ছে। আমরা তাদের এই হীন প্রচেষ্টার তীব্র নিন্দা জানাচ্ছি এবং এ অপতৎপরতা থেকে মুক্তি পেতে সকলের সহযোগিতা কামনা করছি’।

সংবাদ সম্মেলনে শামছুন নাহারের সাথে তার চার ছেলে ও দু’কন্যা উপস্থিত ছিলেন।

Comments

comments

Close