বৃহস্পতিবার, ১৫ এপ্রিল, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ
সর্বশেষ সংবাদ
চটগ্রাম বিভাগ, প্রচ্ছদ, বিনোদন কষ্টের মাঝে নষ্টের জন্ম” সকল অসংগতির বিরুদ্ধে কুঠারাঘাত

কষ্টের মাঝে নষ্টের জন্ম” সকল অসংগতির বিরুদ্ধে কুঠারাঘাত


পোস্ট করেছেন: বার্তা বিভাগ | প্রকাশিত হয়েছে: ফেব্রুয়ারি ২৭, ২০২০ , ৪:২২ অপরাহ্ণ | বিভাগ: চটগ্রাম বিভাগ,প্রচ্ছদ,বিনোদন


এস.এম নুরুল আক্তার
 
২০২০ সালের একুশের বইমেলা উপলক্ষে ঢাকাস্থ ক্যানভাস প্রকাশনী থেকে প্রকাশ হয়েছে দুই বাংলার জনপ্রিয় কাব্যপ্রভাকর উপাধী প্রাপ্ত কবি বাদল বাদল রায় স্বাধীনের তৃতীয় একক কাব্যগ্রন্থ “কষ্টের মাঝে নষ্টের জন্ম”।বইটির প্রকাশক কবি নাজমুল ইসলাম সীমান্ত। প্রচ্ছদ এঁকেছেন প্রচ্ছদ শিল্পী নবী হোসেন।মুখবন্ধ লিখেছেন বাংলাদেশের বিখ্যাত অভিনেতা ও কবি এ.বি.এম সোহেল রশিদ। কাব্যগ্রন্থটির পৃষ্ঠপোষকতায় রয়েছেন বিশিষ্ট্য শিল্পপতি ও সমাজ সেবক জিএম ফারুক,উপনগর পত্রিকার সম্পাদক ও চট্টগ্রাম উত্তর জেলা যুবলীগের অর্থ সম্পাদক আতিকুর রহমান আজাদ (ফরহাদ) এবং মগধরা ইউনিয়নের রেমিটেন্স যোদ্ধা মোঃ রিপন। বইটির শুভেচ্ছা মুল্য ধরা হয়েছে ২২০ টাকা। ইতিমধ্যে সন্দ্বীপ সহ বাংলাদেশের অনেক সচেতন পাঠকের কাছে বইটি ব্যাপক পাঠক প্রিয়তা পেয়েছে বিশেষ করে তরুন প্রজন্মের কাছে বইটি বহুল আলোচিত এবং নন্দিত কাব্যগ্রন্থে পরিনত হয়েছে। কারন সকল অনিয়ম ও অসংগতির বিরুদ্ধে এটি একটি কাব্যিক কুঠারাঘাত বলে মনে করছে বিভিন্ন মহলের লোকজন। লেখক তার কাব্যগ্রন্থে সমাজিক, রাজনৈতিক,প্রশাসনিক লেভেল থেকে শুরু করে ধর্মীয় গুরুদের অনিয়ম ও অন্যায়ের বিরুদ্ধে পর্যন্ত অত্যান্ত ব্যাঙ্গ ভাবে সুঁচালো শব্দের অাঘাতে জর্জরিত করেছেন।এছাড়াও প্রেম, বিরহ,নারীর প্রতি সহিংসতা, বৈশ্বিক সমস্যা তুলে ধরে সেগুলো থেকে উত্তোরনের উপায়ও বাতলে দিয়েছেন। আর অত্যান্ত নান্দনিক ও সহজ সরল উপায়ে সেগুলো উপস্থাপন তাকে সহ তার কবিতাকে জনপ্রিয়তা ও পাঠক প্রিয়তার শীর্ষে তুলে দিয়েছে।
 
তার কবিতা সম্পর্কে বাংলাদেশের বিখ্যাত কবি ও অভিনেতা এবিএম সোহেল রশিদ লিখেছেন –
প্রকৃতির সাথে যুদ্ধ করে নিজেকে বিকশিত করে বলেই হয়তো দ্বীপের মানুষগুলো খুবই মেধাবী ও বিচক্ষণ হয়। সন্দীপের গুণিজনদের জেনে এ ধারণা আমার জন্মেছে। আকাশ ও সমুদ্রের বিশালতা তাদের চিন্তার পৃথিবীকে সম্প্রসারণ করে। আমাদের আদি কবি মিন নাথ ( মৎসেন্দ্র নাথ), মধ্যযুগের কবি আব্দুল হাকিম, কমরেড মুজাফ্ফর আহমেদ, বিপ্লবী লাল মোহন সেন, অধ্যাপক রাজ কুমার চক্রবর্তী সহ-কয়েকজন খ্যাতিমান কবি, সাহিত্যিক, শিল্পী, রাজনীতিবিদ ও অভিনেতার জন্ম দ্বীপকন্যা সন্দ্বীপে হওয়ার কারণে আমার ভাবনাটি বিশ্বাসযোগ্যতা পেয়েছে ।
কবি বাদল রায় স্বাধীন লেখালেখির পাশাপাশি অভিনয়ের সাথেও সম্পৃক্ত। তাঁর কবিতা আমাকে অনুপ্রাণিত করে। বেশ অনেকদিন ধরে অনলাইন সাহিত্য গ্রুপগুলোতে বাদল রায় স্বাধীনের সরব উপস্থিতির কারণে তাঁর কবিতা অনেকবার পড়ার সুযোগ হয়েছে। ভালো লাগার অনুভুতি থেকে কবিতা আবৃত্তির লাইভ অনুষ্ঠানে বেশ কয়েকবার আমি তাঁর কবিতা আবৃত্তিও করেছি।তার কবিতার ভেতরের দ্রোহ ও দেশপ্রেম আমাকে টানে। কবি, অত্যন্ত নিপুণভাবে সমাজের অনিয়ম, অসংগতিকে ছান্দসিক ভাবে তুলে ধরে, সেগুলো থেকে উত্তোরনের উপায়ও তার কবিতায় শৈল্পিকভাবে ফুটিয়ে তুলেছেন । তিনি সময়ের প্রবাহে আমাদের অগ্রজ কবি মিন নাথ,অাব্দুল হাকিম এর যোগ্য উত্তরসূরী হয়ে উঠবেন, তা নির্দ্বিধায় বলা যায়। তিনি লেখার মধ্য দিয়ে সবসময় নিজ মৃত্তিকার প্রতিনিধিত্ব করেন, যা আমার কাছে ভালো লেগেছে।
সন্দ্বীপে বিদ্রোহী কবি নজরুলের পদধুলী পড়েছে। তাই সেখানে দ্রোহ ও প্রেমের কবি জন্ম নিবে এটাই স্বাভাবিক। আজ বাদল রায় স্বাধীন এপার বাংলা ও ওপার বাংলার একজন স্বনামধন্য কবি । লেখালেখীর স্বীকৃতি হিসেবে দুই বাংলায় সমভাবে সমাদৃত হওয়ার কারনে বেশ কয়েকবার স্বীকৃতিও পেয়েছেন। ইতিমধ্যে তার দুটি কাব্যগ্রন্থ পাঠকের কাছে সমাদৃত হয়েছে। তার তৃতীয় কাব্যগ্রন্থ “কষ্টের মাঝে,নষ্টের জন্ম” পাঠককে রস সিঞ্চনের পাশাপাশি বর্তমান প্রেক্ষাপটে সকলের মনে শুদ্ধতার চর্চা চালাতে উদ্বুদ্ধ করবে এটা নিঃসন্দেহে বলতে পারি।
প্রসঙ্গত উল্লেখ্য যে কবির পুর্বে প্রকাশিত দুটি কাব্যগ্রন্থ হলো “তোমাকে নিঃসঙ্গ দেখতে চাই “ও “অসুখেও সুখ আছে ” লেখকের হাতে সর্বোচ্চ বিক্রয়ের রেকর্ড ভেঙ্গেছে। কবি লেখালেখির স্বীকৃতি স্বরুপ ভারতের আন্তর্জাতিক বাংলা কবি ও কবিতা সাহিত্য সংগঠন থেকে কাব্য প্রভাকর উপাধী পেয়েছেন, পেয়েছেন জাতীয় ছড়াগুরু মহিউদ্দীন আকবর দাদুমনি সাহিত্য পুরস্কার,বীরপ্রতিক খেতাব প্রাপ্ত অবসর প্রাপ্ত কর্নেল দিদারুল আলম ফাউন্ডেশন কর্তৃক কবিতায় অবদানের স্বীকৃতি স্বরুপ শ্রেষ্ঠ লেখক সন্মাননা পুরস্কার। ইতিমধ্যে রংপুর হতে কাব্যচন্দ্রিকা সাহিত্য পুরস্কারের জন্য মনোনীত হয়েছেন।বইটি সরাসরি ও কুরিয়ারে পেতে লেখকের মোবাইল নাম্বার 01814177398 এই নাম্বারে যোগাযোগ করতে পারেন।

Comments

comments

Close