রবিবার, ৭ মার্চ, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ
সর্বশেষ সংবাদ
আজকের পত্রিকা, জীবন ধারা, ঢাকা বিভাগ, প্রচ্ছদ, প্রথম পাতা মানবতার সওদাগর আকরাম হোসেন বাদশা

মানবতার সওদাগর আকরাম হোসেন বাদশা


পোস্ট করেছেন: ক্রাইম রিপোর্টার, মোঃ রমজান আলী রুবেল | প্রকাশিত হয়েছে: এপ্রিল ১৫, ২০২০ , ১:৩৮ পূর্বাহ্ণ | বিভাগ: আজকের পত্রিকা,জীবন ধারা,ঢাকা বিভাগ,প্রচ্ছদ,প্রথম পাতা


রিপোর্টার রমজান আলী রুবেলঃ শান্তিতে বাদশা, দুর্যোগে বাদশা, সর্বত্র বাদশা, দেশের তরে!বলছি রাজ্যহীন এক বাদশার কথা!আমরাম হোসেন বাদশা। তিনি কোন রাজ্যের বাদশা নন, তবে মানবতার বাদশা,তিনি যেন সর্বত্রই বিরাজ করেন গরীব দুখীর মানুষের অন্তরে যার মন সবসময় কাঁদে অবহেলিত, অসহায় অক্ষমদের জন্য চেস্টা করেন নিজের উপার্জিত অর্থ দিয়ে তাদের মুখে হাসি ফুটাতে তাদের পাশে দাড়াতে ও সুখ শান্তি ভাগাভাগি করতে। দেশের কোথায় অসহায়দের খবর পেলেই ছুটে যান তাদের কাছে, হয়ে যান তাদের আপনজন। কখনো ছুটে যান বন্যার্তদের ত্রান নিয়ে, কখনো শীতার্তদের শীতের পোষাক নিয়ে, কখনো শিক্ষার্থীদের শিক্ষা উপকরন নিয়ে, আবার অসহায় রোহিঙ্গাদের সাহায্য করতে ছুটে যান ক্লান্তিহীন এক ভ্রাম্যমান ফেরিওয়ালা যিনি সওদা করেন মানবতার! সারা বিশ্ব যখন কভিট-১৯ করোনা ভাইরাসে বিপর্যস্ত প্রিয় বাংলাদেশও হয়ে পরে অঘোষিত অবরোদ্ধ পুরো দেশে কর্মহীন হয়ে পরে লক্ষ লক্ষ মানুষ

একেকটি পরিবার যখন চরম দুঃচিন্তার সাগরে কুলকিনারের সন্ধানে যখন তার ৭ বছরে ছোট নিঃস্পাপ মাসুম মেয়ে মিফতাহ বায়না করলো চকটেল খাওয়ার ঠিক তখনই তার চোখের সামনে বেসে উঠলো কর্মহীন হয়ে পরা শত শত মানুষের অনাহারে থাকা করুন বাস্তবচিত্র! তৎক্ষনাত বেরিয়ে পরেন আর্তমানবতার সেবায় পরদিন ২৮/০৩/২০২০ সহায়তা করেন শ্রীপুর উপজেলার ৩০০ পরিবারকে পাশাপাশি প্রতিবন্ধিদের উপহার(ত্রাণ) সামগ্রীর সাথে আর্থিক সহযোগীতাও করেন।সব শেষে নিজের মেয়ে মিফতাহ এর কথাও বুলেননি তিনি! অসহায়দের মুখে হাসি ফুটিয়ে বীরের বেশে বাড়ী ফেরার পথে প্রিয় কন্যা মিফতাহ এর জন্যও কিনে নেন চকলেট!এখানেই থেমে থাকেননি তিনি সবাই যখন ফটোসেশন শেষ করে হোম কোয়ারেন্টাইনে তখনও তিনি গোপনে খোঁজ খবর নিচ্ছেন কারা এখনো কোন ধরনের সহযোগীতা পাননি। লোক মারফত পৌছে দিচ্ছেন উপহার সামগ্রী আর এভাবেই হয়ে উঠলেন লক্ষ মানুষের বাদশা, অর্থাৎ বাদশা ভাই।

Comments

comments

Close