রবিবার, ২৮ ফেব্রুয়ারি, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ
সর্বশেষ সংবাদ
অপরাধ, আইন ও বিচার, আজকের পত্রিকা, খুলনা বিভাগ, দ্বিতীয় পাতা, প্রচ্ছদ শালিখায় অসহায় বেকা জামাল চাচা ও ভাইয়ের প্রতারণার কবলে

শালিখায় অসহায় বেকা জামাল চাচা ও ভাইয়ের প্রতারণার কবলে


পোস্ট করেছেন: নিউজ ডেস্ক | প্রকাশিত হয়েছে: জুন ২০, ২০২০ , ১১:৩৫ অপরাহ্ণ | বিভাগ: অপরাধ,আইন ও বিচার,আজকের পত্রিকা,খুলনা বিভাগ,দ্বিতীয় পাতা,প্রচ্ছদ


ফারুক আহমেদ, মাগুরা প্রতিনিধি ঃ
মাগুরা জেলার শতখালী গ্রামের বেকা জামাল,পিতা-মৃত্যু আব্দুল হক হাওলাদার,
দুই ভাইয়ের মধ্যো বেকা জামাল ছোট। তার বড় ভাইয়ের নাম আলি হোসেন সে বাড়ীতে থাকে না-মাঝে মধ্যো বাড়ীতে আসে। বেকা জামাল অশিক্ষিত তাই সেই সুযোগ নিয়ে বাপ দাদার বাস্তভিটা জমি জমা সব কিছুই কৌশলে হাতিয়ে নিচ্ছে চাচা রশিদ হাওলাদার। কিন্তু বেকা জামাল কিছুই বুঝিতে পারছে না।
বেকা জামাল শতখালী ইউনিয়নের কাতলী বাজারে নিজের বাপের জমিতে চায়ের দোকান দেওয়ার জন্য ঘরের সরমজান কিনে আনে। আর তখনি তার বড় ভাই বাজারের সেই জমি বিক্রি করে ফেলে আর তখনি বেকা জামাল টের পাই যে সে সকল কিছু থেকে বঞ্চিত হয়ে গেছে। দারে দারে বিচার চেয়েও কোন বিচার পাই না। এক পর্যায়ে সে পাগলের মত হয়ে যায়। বিভিন্ন লোকের বাড়ীতে গিয়ে কামলা খেটে কোন রকম সংসার চালাতে থাকে।
এ ভাবে চলতে থাকে কিছু দিন তার পর হঠাৎ সে শুনতে পারে যে তার ভিটা ছেড়ে দিতে হবে এবং কোট থেকে সমন আসে।
ঘটনা এবার নতুন মোড় নেই,
তার চাচা রশিদ হাওলাদার বেকা জামাল এবং তার ভাই আলি হোসেনের নামে মামলা করেছে। বেকা জামালের ভাই বাড়ীতে না থাকায় প্রভাব পড়ে জামালের উপর।
চাচা রশিদসহ এলাকার মোড়ল মাতুব্বর জামাল কে ভিটা থেকে উচ্ছেদ করার জন্য তাকে বিভিন্ন ভাবে অত্যাচার করতে থাকে।
নিজের ভিটার ফসল কাটতে এবং নতুন করে কোন কিছু না করতে নিষেধ করা হয়।
শোনা যায় তার সকল বসত ভিটা চাচা রশিদ হাওলাদারের নামে হয়ে গেছে। এ খবর শোনার পরে বেকা জামাল এখন পাগল প্রাই।
বেকা জামাল পথে পথে ঘুরে ঘুরে সকলের কাছে বিচার দাবী করেও কোন ফল পাচ্ছে না।
দারিদ্র্য সীমার নিচেই থাকার কারনে নিজের পৈত্তিক ভিটা হারাতে বসেছে।
এখন বেকা জামাল মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সরকারের হস্তক্ষেপ কামনা করছে।
Attachments area

Comments

comments

Close