মঙ্গলবার, ২৬ জানুয়ারি, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ
সর্বশেষ সংবাদ
আইন ও বিচার, প্রচ্ছদ, রাজশাহী বিভাগ নওগাঁয় গ্রাম আদালত বিষয়ক কর্মশালা

নওগাঁয় গ্রাম আদালত বিষয়ক কর্মশালা


পোস্ট করেছেন: নিউজ ডেস্ক | প্রকাশিত হয়েছে: ডিসেম্বর ৩, ২০২০ , ১১:৪৯ অপরাহ্ণ | বিভাগ: আইন ও বিচার,প্রচ্ছদ,রাজশাহী বিভাগ


মোয়াজ্জেম হোসেন,নওগাঁ প্রতিনিধি:

নওগাঁ সদর উপজেলা পরিষদ অডিটরিয়ামে ‘গ্রাম আদালত পরিচালনায় হিসাব সহকারী-কাম-কম্পিউটার অপারেটরদের সম্পৃক্তকরণ’ শীর্ষক জেলা পর্যায় কর্মশালা অনুষ্ঠিত হয়। বৃহস্পতিবার দুপুরে জেলা প্রশাসনের আয়োজনে কর্মশালায় প্রধান অতিথি ছিলেন জেলা প্রশাসক মো. হারুন-অর-রশীদ।

স্থানীয় সরকারের উপপরিচালক (উপসচিব) গোলাম মোঃ শাহনেওয়াজ সভাপতিত্বে কর্মশালায় উপস্থিত ছিলেন, ইউএনডিপি বাংলাদেশ এর পক্ষ থেকে জুম এর মাধ্যমে যুক্ত হন বাংলাদেশে গ্রাম আদালত সক্রিয়করণ (২য় পর্যায়) প্রকল্পের সিনিয়র প্রজেক্ট ম্যানেজার সরদার এম. আসাদুজ্জামান।

স্থানীয় সরকার শাখা নওগাঁ এর পরিসংখ্যান সহকারী এস.এম. আবু হাসান এর স ালনায় অনুষ্ঠিত এ কর্মশালায় অংশগ্রহণকারী হিসেবে উপস্থিত ছিলেন গ্রাম আদালত প্রকল্পভুক্ত উপজেলাসমূহের উপজেলা নির্বাহী অফিসারবৃন্দ, ইউপি চেয়ারম্যানবৃন্দ, হিসাব সহকারী-কাম-কম্পিউটার অপারেটরবৃন্দ, স্থানীয় সরকার শাখা, নওগাঁ এর কর্মচারীবৃন্দ এবং প্রকল্পের সহযোগী সংস্থা ইএসডিও’র কর্মীবৃন্দ।

কর্মশালায় মূল প্রতিপাদ্য উপস্থাপন করেন বাংলাদেশে গ্রাম আদালত সক্রিয়করণ (২য় পর্যায়) প্রকল্পের ডিস্ট্রিক্ট ফ্যাসিলিটেটর (ডিএফ) মোঃ শরিফুল ইসলাম।

প্রধান অতিথির জেলা প্রশাসক বলেন, “নওগাঁ জেলায় ০৬টি উপজেলার ৪৯টি ইউনিয়নে গ্রাম আদালত প্রকল্প চলছে। প্রকল্পের শুরু থেকেই গ্রাম আদালতের মামলার সংখ্যাগত দিক থেকে প্রকল্পভূক্ত ২৭টি জেলার মধ্যে নওগাঁ বরাবরই সর্বোচ্চ স্থানে রয়েছে। তাছাড়া সারাদেশের মধ্যে সর্বোচ্চ সংখ্যক গ্রাম আদালতের মামলা নিষ্পত্তির জন্য নওগাঁ জেলা ২১ বার মন্ত্রিপরিষদ বিভাগ থেকে ধন্যবাদ পত্র পেয়েছে। গ্রাম আদালতের ক্ষেত্রে নওগাঁ জেলার এই সাফল্যের পিছনে গ্রাম আদালত প্রকল্পের অবদানের পাশাপাশি জেলা প্রশাসন, উপজেলা প্রশাসন এবং ইউনিয়ন পরিষদেরও গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রয়েছে।

তিনি আরো বলেন, এ পর্যায়ে এসে প্রকল্পের মেয়াদ শেষ হয়ে গেলেও আমাদের সকলকে সম্মিলিতভাবে গ্রাম আদালতের সাফল্যের এই ধারাবহিকতা ধরে রাখতে হবে। তার জন্য আমাদের সবাইকে নিজ নিজ অবস্থান থেকে দায়িত্ব পালন করতে হবে। বিশেষ করে ইউনিয়ন পরিষদের হিসাব সহকারী-কাম-কম্পিউটার অপারেটরদেরকে যেহেতু সরকারি সিদ্ধান্ত মোতাবেক গ্রাম আদালতের পেশকারের দায়িত্বসহ মামলার নথি সংরক্ষণের দায়িত্ব প্রদান করা হয়েছে, সে কারণে আমি মনে করি প্রকল্পের আওতায় নিয়োগকৃত গ্রাম আদলত সহকারীদেরকে প্রত্যাহার করে নিলেও এবং প্রকল্পের মেয়াদ শেষ হয়ে গেলেও নওগাঁ জেলার গ্রাম আদালতের সাফল্যের ধারাবাহিকতা বজায় থাকবে।”

Comments

comments

Close