শনিবার, ৬ মার্চ, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ
সর্বশেষ সংবাদ
আজকের পত্রিকা, কৃষি, প্রচ্ছদ, সংগঠন সংবাদ ঝালকাঠি জেলার প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উপলক্ষে নাগরিক ফোরামের সকল প্রস্তুতি সম্পন্ন

ঝালকাঠি জেলার প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উপলক্ষে নাগরিক ফোরামের সকল প্রস্তুতি সম্পন্ন


পোস্ট করেছেন: বার্তা বিভাগ ৪ | প্রকাশিত হয়েছে: ফেব্রুয়ারি ১, ২০২১ , ২:০৭ পূর্বাহ্ণ | বিভাগ: আজকের পত্রিকা,কৃষি,প্রচ্ছদ,সংগঠন সংবাদ


ঝালকাঠি প্রতিনিধি ঃ

ঝালকাঠি জেলার ৩৭ তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী কাল সোমবার। আজ থেকে ৩৭ বছর আগে ১৯৮৪ সালে ১ ফেব্রুয়ারী ঝালকাঠি জেলার প্রতিষ্ঠা হয়। এর আগে ঝালকাঠি বরিশালের অধীন মহাকুমা ছিলো। নদীকন্যা দ্বিতীয় কলকাতা খ্যাত ঐতিহ্যবাহি এ জেলার বর্তমান পরিচিতি হিসেবে ” পেয়ারা আর শীতল পাঠি দু’য়ে মিলে ঝালকাঠি “ দেশ ছারিয়ে বহিরবিশ্বে ক্ষ্যাতি অর্জন করতে চলছে। ঝালকাঠি জেলার প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উপলক্ষে ঝালকাঠি নাগরিক ফোরামের পক্ষ হতে আয়োজন করা হয়েছে নানা কর্মসূচী।

জেলার প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উপলক্ষে ১ ফেব্রুয়ারি বিকেল ৩ টায় জেলা প্রশাসক কার্যালয়ের সামনে থেকে জেলার সকল পেশাজীবী মানুষের অংশগ্রহনে এক র্বনাঢ্য র‍্যালী বের করা হবে। র‍্যালী শেষে জেলা শিল্পকলা একাডেমি মিলনায়তনে আলোচনা সভা ও গুনীজন সংবধর্না ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়। ঝালকাঠি নাগরিক ফোরাম প্রতিষ্ঠার পর থেকে ঝালকাঠি জেলার প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী পালন করে আসলেও এবারের আয়োজনে ২১ জন গুনী ব্যক্তিকে বিভিন্ন বিষয় অবদান রাখার জন্য সম্মাননা প্রদান করবে। উক্ত প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী অনুষ্ঠানে ভার্চুয়ালি প্রধান অতিথি থাকবেন ঝালকাঠি-২ আসনের এমপি এবং ১৪ দলের সমন্বয়ক ও মুখপাত্র আমির হোসেন আমু।

কর্মসূচীর উদ্বোধন করবেন ঝালকাঠি জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান সরদার মো: শাহ আলম। বিশেষ অতিথি থাকবেন ঝালকাঠি জেলা প্রশাসক মো. জোহর আলী, পুলিশ সুপার ফাতিহা ইয়াসমিন, জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এ্যাডভোকেট খান সাইফুল্লাহ পনির এবং ঝালকাঠি পৌর মেয়র আলহাজ্ব লিয়াকত আলী তালুকদার। অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করবেন ঝালকাঠি নাগরিক ফোরামের সভাপতি সামসুল হক মনু এবং প্রধান বক্তা থাকবেন ঝালকাঠি নাগরিক ফোরামের প্রতিষ্ঠাতা ও সাধারণ সম্পাদক আহমেদ আবু জাফর।

ঝালকাঠি নাগরিক ফোরাম নেতৃবৃন্দ জানান, আলোচনা সভা ও গুনিজন সংবধর্না ছাড়াও দিবসটি উপলক্ষে আমরা একটি ম্যাগাজিন প্রকাশ, ক্রীড়া অনুষ্ঠান ও মনোজ্ঞ সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের আয়োজন করেছি। তারা আরো জানান, ঝালকাঠি জেলার ঐতিহ্যকে তুলে ধরার জন্য আমরা এ কর্মসূচীর আয়োজন করেছি। দ্বিতীয়বারের মত আমরা ঝালকাঠি জেলার প্রতিষ্ঠাবার্ষিকীতে এ ধরনের কর্মসূচীর আয়োজন করেছি। পুরো আয়োজনটি সকলের জন্য উম্মুক্ত রাখা হয়েছে।

Comments

comments

Close