রবিবার, ৭ মার্চ, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ
সর্বশেষ সংবাদ
অপরাধ, আইন ও বিচার, ঢাকা বিভাগ, নারী ও শিশু, প্রচ্ছদ বিউটি পার্লার কর্মীকে দিয়ে দেহ ব্যবসা জিসিসি’র নারী কাউন্সিলরের বিরুদ্ধে থানায় মামলা

বিউটি পার্লার কর্মীকে দিয়ে দেহ ব্যবসা জিসিসি’র নারী কাউন্সিলরের বিরুদ্ধে থানায় মামলা


পোস্ট করেছেন: নিউজ ডেস্ক | প্রকাশিত হয়েছে: ফেব্রুয়ারি ১৬, ২০২১ , ৮:৫৬ অপরাহ্ণ | বিভাগ: অপরাধ,আইন ও বিচার,ঢাকা বিভাগ,নারী ও শিশু,প্রচ্ছদ


গাজীপুর মহানগর সংবাদদাতা

বিউটি পার্লার কর্মীকে (১৬) জোরপূর্বক পতিতাবৃত্তিতে বাধ্য করার অভিযোগে গাজীপুর সিটি করপোরেশনের সংরক্ষতি এক নারী কাউন্সিলরের বিরুদ্ধে মঙ্গলবার জিএমপির বাসন থানায় মামলা হয়েছে। অভিযুক্ত কাউন্সিলরের নাম রোকসানা আহমেদ রোজী (৪০)।  তিনি গাসিক ১৬, ১৭ ও ১৮নং সংরক্ষিত ওয়ার্ডের কাউন্সিলর ।  মামলায়  নগরীর গ্রেটওয়াল সিটির মোফাজ্জল হোসেনের বাড়ির কেয়ারটেকার মোঃ নূরুল হক (৬৫)-সহ  অজ্ঞাত পরিচয়ে আরো দুই-তিনজনকে আসামি করা হয়েছে।
এজাহারে বাদি ওই কিশোরী উল্লেখ করেন, চার মাস পূর্বে নারী কাউন্সিলর রোকসানা আহমেদ রোজীর মালিকানাধীন আনন্দ বিউটি পার্লারে তিনি চাকুরি নেন। ওই পার্লার চান্দনা চৌরাস্তায় রহমান শপিং মলে অবস্থিত।

ওই এলাকায় গ্রেটওয়াল সিটিতে নারী কাউন্সিলরের ভাড়া ফ্ল্যাটে তাকে নিক্প্রোয়ই গৃহপরিচারিকার মতো কাজ করাতো। তিনি বাসার কাজ করতে অপারগতা প্রকাশ করলে তাকে নানা ধরণের হুমকি দেয়া হতো। একপর্যায়ে তাকে ওই ফ্ল্যাটে আটকে জোরপূর্বক পতিতাবৃত্তিতে বাধ্য করে। গত ১৫ ডিসেম্বর থেকে ১৩ ফেব্রুয়ারি পর্যন্ত বিভিন্ন সময়ে আসামি নুরুল হকের সহযোগিতায় ওই ফ্ল্যাটে তাকে দিয়ে পতিতাবৃত্তি করানো হয়।  তিনি একাধিকবার নারী কাউন্সিলরের বাসা থেকে পালিয়ে যাওয়ার চেষ্টা করে ব্যর্থ হন। পরে মঙ্গলবার সকালে কৌশলে পালিয়ে এসে বাসন মেট্রো থানায় আশ্রয় নেন এবং পুলিশের কাছে ঘটনার বর্ণনা দিয়ে মামলা  করেন।

বাসন মেট্রো থানার ওসি কামরুল ফারুক জানান, ওই কিশোরীর বাড়ি নেত্রকোনা জেলায়। গাজীপুরে কোন স্বজন না থাকায় অভিযুক্ত নারী কাউন্সিলরের ভাড়া বাসায় থাকতেন। কিশোরী দুই বছর আগে ধর্মান্তরিত হয়ে ইসলাম ধর্ম গ্রহণ করেন। নারী কাউন্সিলর ওই কিশোরীটিকে জিম্মি রেখে দেহ ব্যবসায় বাধ্য করে আসছিলেন বলে অভিযোগ এনে থানায় মামলা দায়ের করেছেন।

এ বিষয়ে নারী কাউন্সিলর রোকসানা আহমেদ রোজীর মোবাইলে কল করা হলে তার ফোনটি বন্ধ পাওয়া যায়।

Comments

comments

Close