শুক্রবার, ৭ মে, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ
সর্বশেষ সংবাদ
অপরাধ, আইন ও বিচার, আজকের পত্রিকা বেনাপোলের সন্ত্রাসী আশা ও তার সহযোগীকে আদালতে সোপর্দ : জামিন পাওয়ায় সংবাদকর্মীরা হতাশ

বেনাপোলের সন্ত্রাসী আশা ও তার সহযোগীকে আদালতে সোপর্দ : জামিন পাওয়ায় সংবাদকর্মীরা হতাশ


পোস্ট করেছেন: বার্তা বিভাগ ৪ | প্রকাশিত হয়েছে: এপ্রিল ১৫, ২০২১ , ১২:২১ পূর্বাহ্ণ | বিভাগ: অপরাধ,আইন ও বিচার,আজকের পত্রিকা


বেনাপোল প্রতিনিধি :

যশোরের বেনাপোলে সাংবাদিকদের জিম্মী করে রাখা সেই ভূমি দস্যু সন্ত্রাসী আশা ও তার এক সহযোগীকে গ্রেফতারের পর আদালতে সোপর্দ করেছে বেনাপোল পোর্ট থানা পুলিশ।

রোববার (১০ এপ্রিল) সকালে বেনাপোল পোর্টথানা থেকে তাকে যশোর আদালতে পাঠানো হয়। তাদের বিরুদ্ধে অসৎ উদ্দেশ্যে জিম্মী করে রাখা, মারধোর সহ ৪টি ধারায় মামলা হয়েছিল। সকালে বিজ্ঞ আদালত জামিন না মঞ্জুর করে জেলহাজতে প্রেরণ করেন। এদিকে আরেকটি সুত্রে জানা গেছে করোনা ইস্যু দিয়ে বিকালে স্পেশাল জজ দিয়ে জামিন পেয়েছে আশা। সন্ত্রাসী আশা জামিন পাওয়ায় ক্ষোভ প্রকাশে সাংবাদিকরা জানান, এভাবে যদি এসব ভূমি দস্যু সন্ত্রাসীরা বার বার ছাড়া পায় তাহলে তাদের অপরাধ কর্ম তো থামবে না। আর কিভাবে কলম সৈনিকেরা নির্ভয়ে অনিয়ম দূর্নীতির তথ্য সংগ্রহ সহ সংবাদ লিখবে বা সংবাদ মাধ্যমে প্রকাশে তুলে ধরবো? সেটাই ভেবে পাচ্ছি না আমরা এখন আতঙ্কের মধ্যে আছি কখন যে আবার ঐ সন্ত্রাসীরা আবারও হামলা চালাবে তারও ঠিক নাই। খুবই আতঙ্কের মধ্যে আছি। আমরা সংবাদকর্মীরা সঠিক বিচারের আশায় ছিলাম কিন্তু দুঃখের বিষয় সঠিক বিচার পেলাম না। এমতাবস্থায় মাননীয় প্রধানমন্ত্রী সহ আদালতের বিচারক মহোদয়দের নিকট সঠিক দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবি কামনা ব্যক্ত করছি। সুত্রে আরো জানা গেছে গতি ৪/৫ বছর আগে বেসরকারি শীর্ষ এক স্যাটেলাইট চ্যানেলের বেনাপোল প্রতিনিধিকে অপহরণ করে জিম্মি হামলা ও মারধর করা সহ প্রাণনাশে গুম করার চেষ্টায় জড়িত ছিলো সন্ত্রাসী প্রধান এই আশা।

পুলিশ ও স্থানীয় সাংবাদিকরা জানায়, গত বৃহস্পতিবার সকালে স্থানীয় কয়েকজন গণমাধ্যমকর্মী বেনাপোল সীমান্তের বাহাদুরপুর মেন্দের টেকে অবৈধ বালু-মাটি কাটার খবর পেয়ে ঘটনা স্থলে যায়। এসময় ছবি তুলতে গেলে ঐ এলাকার সন্ত্রাসী ও ভূমি দস্যু আশা তার বাহিনী নিয়ে সংবাদকর্মীদের উপর আক্রমন চালিয়ে আহত করে ও ক্যামেরা ছিনিয়ে নেয়। অকর্থ ভাষায় পুলিশ ও সংবাদকর্মীদের উদ্দেশ্যে গালিগালাজ করে তাদেরকে আটকে রাখে। খবর পেয়ে পুলিশ ও স্থানীয় সংবাদকর্মীরা তাদের উদ্ধার করে। বিষয়টি নিয়ে পোর্টথানায় অভিযোগ দায়ের হলে, পুলিশ আশা ও তার সহযোগী বাবলুকে গ্রেফতার করে জেলা আদালতে প্রেরণ করেন।

এদিকে স্থানীয়রা জানান, দীর্ঘদিন ধরে আশা তার এলাকায় নিরীহ মানুষদের জিম্মী করে অবৈধ ভাবে বালু, মাটি উত্তোলন করে ফসলী জমির ক্ষতি করে আসলেও রহস্য জনক ভাবে তার বিরুদ্ধে কোন আইনী ব্যবস্থা নেওয়া হতো না।

Comments

comments

Close